kalerkantho


বারৈয়ারহাটে ৩২ হাজার পিস ইয়াবাসহ এএসআই গ্রেপ্তার

ফেনী প্রতিনিধি   

১৯ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০



মাদকসহ আটকের পর আগেই সাময়িক বরখাস্ত এএসআই আবুল বাশার ব্রাহ্মণবাড়িয়া পুলিশ লাইনে সংযুক্ত ছিলেন। কিন্তু কিছুতেই ছাড়তে পারেননি মাদক কারবার। এ অবস্থায় আবারও মাদকসহ গ্রেপ্তার হয়েছেন তিনি। ‘পুলিশ’ লেখা স্টিকার সাঁটানো মোটরবাইকে নিয়মিত ইয়াবা পাচার করতেন আবুল বাশার। গতকাল শনিবার ৩২ হাজার পিস ইয়াবাসহ আবারও ধরা পড়েন র‌্যাব সদস্যদের হাতে।

চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার জোরারগঞ্জের বারৈয়ারহাট এলাকা থেকে গতকাল তাঁকে আটক করা হয়। গোপনে সংবাদ পেয়ে অভিযান চালিয়ে গতকাল সকালে তাঁকে আটক করা হয় বলে জানান র‌্যাব-৭-এর ফেনী ক্রাইম প্রিভেনশন কম্পানি অধিনায়ক, স্কোয়াড্রন লিডার শাফায়াত জামিল ফাহিম। আটক বাশার কুমিল্লা জেলার দেবিদ্বার উপজেলার বৈশেরকোট গ্রামের আবদুল হামিদ মাস্টারের ছেলে।

র‌্যাব জানায়, ফেনী ক্যাম্পের একটি দল গতকাল সকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের বারৈয়ারহাটে অভিযান চালায়। এ সময় বাশার মোটরসাইকেল চালিয়ে চট্টগ্রামের দিক থেকে ঢাকার দিকে যাচ্ছিলেন। সন্দেহ হলে তাঁকে থামার সংকেত দেন র‌্যাব সদস্যরা। কিন্তু না থেমে তিনি পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে পিছু ধাওয়া করে তাঁকে আটক করা হয়। এ সময় তাঁর দেহ ও মোটরবাইকের বিভিন্ন অংশে তল্লাশি চালিয়ে ৩২ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

ক্যাম্প অধিনায়ক জানান, বাশারের দেহ ও মোটরবাইকে তল্লাশি চালিয়ে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। এই ইয়াবা তিনি কক্সবাজারের উখিয়া থেকে নিয়ে আসছিলেন। এর আগেও বাশার ব্রাহ্মণবাড়িয়া ডিবিতে চাকরিরত অবস্থায় বিজিবির হাতে মাদকসহ আটক হয়। পরে তাঁকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে গতকাল বিকেলে তাঁকে জোরারগঞ্জ থানায় নিয়মিত মামলা দিয়ে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

র‌্যাব কর্মকর্তা জানান, জিজ্ঞাসাবাদে বাশার ইয়াবাগুলো নারায়ণগঞ্জে নেওয়া হচ্ছিল বলে জানান।

 



মন্তব্য