kalerkantho


কাপাসিয়ায় প্রেমিক জুটির আত্মহনন

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, গাজীপুর   

১৮ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০



হৃদয় হোসেন ও শাহীনা আক্তার নিপা পরস্পরকে অত্যন্ত ভালোবাসে। তাদের এই বিপুল ভালোবাসায় বাধা হয়ে দাঁড়ায় বয়স। কারণ, দুজনেরই বয়স ১৫। এ অবস্থায় বয়স গোপন করে নোটারি পাবলিকের মাধ্যমে আদালতে গিয়ে বিয়ে করে তারা। ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর উভয় পরিবারের অভিভাবকরা বিয়ের বয়স না হওয়া পর্যন্ত তাদের আলাদা রাখার সিদ্ধান্ত নেন। অভিভাবকদের এই সিদ্ধান্তে অভিমানে দুজনই বিষপান করে। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পথে নিপা এবং চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় হৃদয়। হৃদয়বিদারক এ ঘটনাটি ঘটেছে গত বৃহস্পতিবার রাতে গাজীপুরের কাপাসিয়ায়।

হৃদয় হোসেন কাপাসিয়ার কড়িহাতা ইউনিয়নের ইকুরিয়া গ্রামের আফজাল হোসেন ভূঁইয়ার পুত্র। শাহীনা আক্তার নিপা পাশের সন্মানিয়া ইউনিয়নের আড়াল গ্রামের হানিফ মিয়ার মেয়ে। তারা দুজনই এবার এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিল। এই দুই কিশোর-কিশোরীর আত্মহননে দুই গ্রামেই নেমে আসে শোকের ছায়া।

হৃদয়ের বাবা আফজাল হোসেন ভূঁইয়া জানান, বিয়ের বয়স না হওয়া পর্যন্ত তাদের দুজনকে অপেক্ষা করতে বলেছিলাম। এ ছাড়া আমি আর কোনো কারণ জানি না।

কাপাসিয়া থানার ওসি আবু বকর সিদ্দিক জানান, গত বৃহস্পতিবার গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে হৃদয় ও নিপার মরদেহের ময়নাতদন্ত হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা নেওয়া হয়েছে।

 



মন্তব্য