kalerkantho


ঈদ যাত্রা শুরু

ফেরি সংকটে যানজটের শঙ্কা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৭ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০



ফেরি সংকটে যানজটের শঙ্কা

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার কালনা ঘাটের ৪ নম্বর ফেরিটির তলদেশে ছিদ্র ও ওপরের অংশ ফেটে গেছে। এর পরও মধুমতী নদীতে ঝুঁকি নিয়ে চলছে এই ফেরি। ছবি : কালের কণ্ঠ

ঈদ উপলক্ষে বিভিন্ন যানবাহনের অগ্রিম টিকিট অনুযায়ী গতকাল বৃহস্পতিবার রাত থেকে ঈদ যাত্রা শুরু হয়েছে। নাড়ির টানে বাড়ি ফিরতে অনেকেই ঢাকা ছাড়তে শুরু করেছে। আজ শুক্রবার সড়কপথে ঘরমুখো মানুষের চাপ আরো বাড়বে। দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া, শিমুলিয়া-কাওড়াকান্দি দুটি গুরুত্বপূর্ণ ঘাট। এর মধ্যে গতকাল বৃহস্পতিবার দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ঘাটে ছিল প্রচণ্ড যানজট। ঘাটের জিরো পয়েন্ট থেকে দৌলতদিয়া-খুলনা মহাসড়কে চার কিলোমিটার যানজটের সৃষ্টি হয়। এ রুটে চলাচলকারীদের আশঙ্কা, পুরোপুরি ঈদ যাত্রা শুরু হলে এই ঘাট হবে চরম ভোগান্তির কারণ।

শিমুলিয়া-কাওড়াকান্দি ঘাটে গতকাল তীব্র যানজট না থাকলেও আগামী দু-এক দিনের ঈদ যাত্রায় তীব্র যানজটের আশঙ্কা করা হচ্ছে। তবে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে গতকাল শিমুলিয়া ঘাটে স্থায়ী সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে।

এ ছাড়া বিভিন্ন ঘাটে রয়েছে ফেরি সংকট। ফলে ঘাটে ঘাটে ঈদ যাত্রা খুব সুখকর হবে বলে মনে করছে না চলাচলকারীরা। গতকালও শরীয়তপুর-চাঁদপুর রুটে ইব্রাহিমপুর ফেরি ঘাটে চার শতাধিক যানবাহন আটকে ছিল। কোরবানির ঈদ উপলক্ষে এ রুটে গরু বহনকারী ট্রাকের চাপ বেড়েছে। বিস্তারিত আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে—

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ঘাটে তীব্র যানজট : ব্যস্ততম দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে ছোট-বড় মিলে এখন ২১টি ফেরি চলছে। তবে গতকালও ছিল তীব্র যানজট। সকাল থেকেই ফেরি পারাপারের অপেক্ষায় আটকা পড়ে যাত্রীবাহী বাস, কোরবানির পশুবোঝাই ট্রাকসহ শত শত বিভিন্ন গাড়ি। এতে ঘাটের জিরো পয়েন্ট থেকে দৌলতদিয়া-খুলনা মহাসড়কের বাংলাদেশ হ্যাচারিজ এলাকা পর্যন্ত চার কিলোমিটার যানজটের সৃষ্টি হয়।

ঘাটসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, রাজবাড়ীর গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া ও মানিকগঞ্জের শিবালয় থানার পাটুরিয়া একটি গুরুত্বপূর্ণ নৌপথ। ঈদ সামনে রেখে কোরবানির পশুবাহী ট্রাকসহ ঢাকাগামী বিভিন্ন গাড়ির চাপ দিন দিন বাড়ছে। তাই দৌলতদিয়া ঘাটে লেগে থাকা যানজট পরিস্থিতির কোনো উন্নতি হচ্ছে না। গতকাল দৌলতদিয়া ঘাটে ফেরির টিকিট সিরিয়ালে আটকা পড়ে শত শত বিভিন্ন গাড়ি। বুধবার রাতের শতাধিক নৈশকোচ আটকা পড়ে। এতে যাত্রীরা পড়ে চরম দুর্ভোগে।

বিআইডাব্লিউটিসির দৌলতদিয়া ঘাট অফিস সূত্রে জানা যায়, দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথের বহরে ছোট-বড় মিলে মোট ১৭টি ফেরি ছিল। ঈদ সামনে রেখে কোরবানির পশুবাহী ট্রাকসহ ঘরমুখো মানুষের বয়ে আনা অতিরিক্ত গাড়ির চাপ দিন দিন বাড়ছে। তাই পরিস্থিতি সামাল দিতে শাহ্ পরান, এনায়েতপুরী, শাহ্ মখদুম ও ক্যামেলিয়া নামের চারটি ফেরি শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌপথ থেকে প্রত্যাহার করে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে আনা হয়েছে।

ঘাট ব্যাবস্থাপক মো. শফিকুল ইসলাম কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘বর্তমান এই নৌপথে ফেরির কোনো সংকট নেই। তবে নদীতে স্রোতের তীব্রতা অনেক বেড়েছে। এতে ফেরিগুলো স্বাভাবিক গতিতে চলতে পারছে না। পাশাপাশি কোরবানির পশুবাহী ট্রাকসহ ঢাকাগামী বিভিন্ন গাড়ির চাপ বেড়ে যাওয়ায় দৌলতদিয়া ঘাটে এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।’

চাঁদপুর রুটে ফেরি সংকটে তীব্র যানজট : শরীয়তপুর-চাঁদপুর রুটে ফেরি সংকটে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। গতকাল দুপুরেও ইব্রাহিমপুর ফেরিঘাটে চার শতাধিক যানবাহন নদী পারের অপেক্ষায় দীর্ঘ সিরিয়ালে আটকে ছিল। ইব্রাহিমপুর ঘাটের বিআইডাব্লিউটিসির ব্যবস্থাপক আব্দুস সাত্তার জানান, ইব্রাহিমপুর-হরিণাঘাটে মাত্র দুটি ফেরি রয়েছে। ফেরি সংকটের কারণে ঘাটের যানবাহনগুলো সঠিকভাবে ঠিক সময় পারাপার করানো যাচ্ছে না। মাওয়া থেকে বিকেল ৪টার মধ্যে বড় একটি ফেরি আনা হচ্ছে। এটি যোগ হলেই তাড়াতাড়ি যানবাহন পারাপার করা যাবে।

সরেজমিনে দেখা যায়, ইব্রাহিমপুরে আটকা পড়েছে তিন শতাধিক গরু ও পণ্যবাহী ট্রাক, ৫০টির মতো যাত্রীবাহী বাস ও ৫০টি ছোট যানবাহন। কোরবানির ঈদ উপলক্ষে এ রুটে গরু বহনকারী ট্রাকের চাপ বেড়েছে। তা ছাড়া ইব্রাহিমপুর-হরিণাঘাট নৌরুটে নদী পারাপারের জন্য মাত্র দুটি ফেরি রয়েছে। ফলে সঠিক সময়ে যানবাহনগুলো পারাপার করা সম্ভব হচ্ছে না।

যশোর থেকে গরু নিয়ে আসা ব্যবসায়ী হারুন শেখ বলেন, ‘এবার প্রথম এই ঘাট দিয়ে গরু নিয়ে যাচ্ছি। বুধবার বিকেলে আসছি কিন্তু সিরিয়াল পাইনি।’ গড়িচালক হাবিব খান বলেন, ‘গত দুই দিন ধরে এসে বসে আছি। এখনো পার হওয়ার কোনো খবর নেই। কখন হব বুঝতে পারছি না।’

শিমুলিয়া ঘাটে সিসি ক্যামেরা উদ্বোধন : ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের শিমুলিয়া ঘাটে স্থায়ী সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে। গতকাল এ সিসি ক্যামেরার অনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম পিপিএম। এ সময় আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে যাত্রীদের নিরাপত্তায় ঘাটে মোতায়েনকৃত পুলিশ সদস্যদের ব্রিফিংও করেন তিনি। ব্রিফিং শেষে জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম পিপিএম শিমুলিয়া ঘাটে যাত্রীদের ও চলাচলরত যানবাহনের নিরাপত্তার জন্য ঘাটের বিভিন্ন পয়েন্টে লাগানো ১৬টি সিসি ক্যামেরা ঘাটের কন্ট্রেল রুম থেকে উদ্বোধন করেন।



মন্তব্য