kalerkantho


চকরিয়ায় নববধূর অস্বাভাবিক মৃত্যু

স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন পলাতক

চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি   

১৬ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০



কক্সবাজারের চকরিয়ায় বিয়ের মাত্র তিন মাসের মাথায় কুলসুমা বেগম (২০) নামের এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ শ্বশুরবাড়ি থেকে তাঁর লাশ উদ্ধার করেছে। সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি শেষে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে।

গতকাল বুধবার দুপুর ২টার দিকে উপজেলার সাহারবিল ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের রামপুর উমখালীর শ্বশুরবাড়ি থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ওই গৃহবধূর স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন পালিয়ে যায়। কুলসুমা উমখালী গ্রামের ছৈয়দ আকবরের ছেলে আবদুল্লাহর স্ত্রী।

উপজেলার কাকারা ইউনিয়নের দক্ষিণ কাকারা গ্রামের মোহাম্মদ সোলাইমানের অভিযোগ, তাঁর মেয়ের সঙ্গে তিন মাস আগে আবদুল্লাহর বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে বিভিন্ন দাবিতে তাঁকে মারধর করত স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন। সর্বশেষ মঙ্গলবার রাতেও তাঁকে মারধর করা হয়। আর এ কারণেই কুলসুমার মৃত্যু হয়।

তবে চকরিয়া থানার এসআই আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘কুলসুমাকে প্রতিনিয়ত শারীরিকভাবে নির্যাতন করা হতো বলে প্রতিবেশীরা বলেছে। তবে লাশ উদ্ধার করতে গেলে মরদেহের পাশে কীটনাশকের বোতল পাওয়া যায়। এতে ধারণা করা হচ্ছে, তিনি কীটনাশক পান করে মারা গেছেন।’

চকরিয়া থানার ওসি (তদন্ত) মো. ইয়াছির আরাফাত বলেন, ‘লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়া গেলে তাঁর মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ পেলে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

 



মন্তব্য