kalerkantho


শান্তিনিকেতনের বাংলাদেশ ভবনে পানি চোয়াচ্ছে

কলকাতা প্রতিনিধি   

২৩ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



শান্তিনিকেতনে বাংলাদেশ ভবন নিয়ে সমস্যায় পড়েছে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ। কারণ নবনির্মিত অট্টালিকার নানা জায়গা দিয়ে ভরা বর্ষায় পানি চোয়াচ্ছে। তারা ভারতের ন্যাশনাল বিল্ডিংস কনস্ট্রাকশন কম্পানিকে (এনবিসিসি) সাফ জানিয়ে দিয়েছে, এ অবস্থায় তারা ভবনটি বুঝে নেওয়া হবে না।

বিশ্বভারতীর একটি সূত্র জানায়, ভবনটি রক্ষণাবেক্ষণে সম্পৃক্ত কর্মচারীরা কয়েক দিন আগে জানান যে বিভিন্ন জায়গা দিয়ে বৃষ্টির পানি চুয়ে পড়ছে। বেশ কিছু জায়গায় পানি পড়ছে এবং তা ভবনের ভেতরে জমে যাচ্ছে। তার মানে পানি নির্গমনব্যবস্থায় ত্রুটি আছে। তা ছাড়া ভবনের সব জায়গা যথাযথভাবে ঠাণ্ডা হচ্ছে না। এ অবস্থায় বিশ্বভারতীর মুখ্য সমন্বয়কারী মনোবেন্দ্র মুখোপাধ্যায় ও ইঞ্জিনিয়ার অমিত সেনগুপ্ত দিন দুয়েক আগে বাংলাদেশ ভবন ঘুরে দেখেন। এই পর্যবেক্ষণের পর বিশ্বভারতীতে এক বৈঠকে করণীয় নিয়ে আলোচনা হয়।

বিশ্বভারতীর কার্যনির্বাহী উপাচার্য সবুজকলি সেন বলেন, ‘আমরা জানতে পেরেছি যে বাংলাদেশ ভবনে কিছু সমস্যা আছে...। আমরা এনবিসিসিকে লিখিত আকারে জানিয়ে দিয়েছি, ভালো করে ভবনটি সারিয়ে না দেওয়া পর্যন্ত আমরা এর হস্তান্তর গ্রহণ করব না।’

এনবিসিসি কেন্দ্রীয় সরকারের একটি কম্পানি। ২০১৩ সালে বাংলাদেশ ভবনের পরিকল্পনা হওয়ার পর তাদেরকে ভবনের নকশা ও নির্মাণকাজ দেওয়া হয়। বাংলাদেশ সরকারের অনুদান দেওয়া ২৫ কোটি রুপি ব্যয়েই ভবনটি নির্মাণ করা হয়। গত ২৫ মে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির উপস্থিতিতে ভবনটি উদ্বোধন করেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 



মন্তব্য