kalerkantho


রাজধানীতে ‘স্বস্তির’ বৃষ্টির পর ভাপসা গরম

গত বছরের চেয়ে তাপমাত্রা বেশি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



মাথার ওপর অনবরত ফ্যান ঘুরলেও গত বৃহস্পতিবার রাতে প্রচণ্ড গরমে ঘুম হয়নি রাজধানীর লাখো মানুষের। গতকাল শুক্রবার প্রত্যাশার বৃষ্টি নেমেছিল ঠিকই; কিন্তু এক পশলা। আর স্বাভাবিকভাবেই ওই এক পশলা বৃষ্টির পর গরম রূপ নেয় ভাপসা গরমে।

ভরা বর্ষা মৌসুমের মধ্যেও কয়েক দিন ধরে প্রায় সারা দেশেই চলছে তাপপ্রবাহ। রাজধানী ঢাকা, উত্তর-পূর্বের সিলেট, উত্তরের রাজশাহী, দক্ষিণের খুলনা—কোনো অঞ্চলেই বৃষ্টির দেখা নেই।

আগের দিনের মতো গতকাল সকাল থেকেই রাজধানীতে ছিল তাপপ্রবাহ। আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্যানুসারে, গতকাল ঢাকায় তাপমাত্রা ছিল ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সিলেটে ছিল ৩৭ দশমিক ৩ ডিগ্রি, শ্রীমঙ্গলে ৩৭ দশমিক ৫, রাজশাহীতে ৩৭ দশমিক ১, বগুড়ায় ৩৬ দশমিক ২, বরিশালে ৩৩ দশমিক ৬ ও কুড়িগ্রামের রাজারহাটে ছিল ৩৮ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আগের দিন (বৃহস্পতিবার) ঢাকায় তাপমাত্রা ছিল ৩৭ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, গতকাল শুক্রবার তা একটু কমে দাঁড়ায় ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের কর্মকর্তা আরিফ হোসেন কালের কণ্ঠকে জানান, ঢাকায় গত বছরের একই মাসে এবারের চেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছিল। তাপমাত্রাও ছিল কম। তিনি জানান, ২০১৭ সালের ২০ জুলাই ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৮ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তিনি জানান, দক্ষিণাঞ্চলে বৃষ্টিপাত শুরু হবে আগামীকাল রবিবার থেকে। ঢাকায় শুরু হবে তারপর। তখন তাপমাত্রা কমবে। বৃষ্টিপাতের মাত্রাও কয়েক দিনের মধ্যে বাড়বে বলে জানান তিনি।

গতকাল সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, উত্তর বঙ্গোপসাগর ও এর পাশের এলাকাগুলোয় অবস্থিত লঘুচাপ গতকাল উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তত্সংলগ্ন এলাকায় সুস্পষ্ট লঘুচাপরূপে অবস্থান করছিল। এটি আরো ঘনীভূত হতে পারে। এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তত্সংলগ্ন উপকূলীয় এলাকায় গভীর সঞ্চারণশীল মেঘমালা তৈরি অব্যাহত আছে। মৌসুমি বায়ুর অক্ষ ভারতের রাজস্থান, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, বিহার, পশ্চিমবঙ্গ, লঘুচাপের কেন্দ্রস্থল হয়ে দেশের দক্ষিণাঞ্চল অতিক্রম করে উত্তর-পূর্ব দিকে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত। মৌসুমি বায়ু দেশের ওপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি থেকে প্রবল অবস্থায় বিরাজ করছে।

গতকাল সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রাজশাহী, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায়, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগের কিছু জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ও ভারি থেকে ভারি বর্ষণও হতে পারে।

ময়মনসিংহ, চাঁদপুর, রাজশাহী ও বগুড়া অঞ্চল, রংপুর ও সিলেট বিভাগের ওপর দিয়ে যে মৃদু থেকে মাঝারি তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে, তা প্রশমিত হতে পারে। সারা দেশে তাপমাত্রা ২ থেকে ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমতে পারে। গতকাল সকালে ঢাকায় বাতাসের আর্দ্রতা ছিল ৮০ শতাংশ।



মন্তব্য