kalerkantho


পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে বক্তারা

নারীর প্রতি সহিংসতা রুখতে সবাইকে সোচ্চার হতে হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



নারীর প্রতি সহিংসতা রুখতে সবাইকে সোচ্চার হতে হবে

গতকাল জাতীয় প্রেস ক্লাবে নারী-শিশুদের প্রতি সহিংসতা ও যৌন নির্যাতন প্রতিরোধ বিষয়ে সেরা সাংবাদিকদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। ছবি : কালের কণ্ঠ

নারীরা এখন আর বোঝা নয়। আদিকালের সেই ধারণা যোগ্যতা দিয়ে পাল্টে দিয়েছে নারীসমাজ। ঘর থেকে কর্মক্ষেত্র—সব জায়গায় নারী তার যোগ্যতা দিয়েই অবস্থান তৈরি করে নিয়েছে। সমাজের উন্নয়নে নারীদের পেছনে রাখার সুযোগ নেই। একই সঙ্গে নারীর প্রতি সহিংসতা রুখতে সবাইকে সোচ্চার হতে হবে। যেকোনো নির্যাতিত নারীর পাশে দাঁড়াতে হবে।

গতকাল বৃহস্পতিবার নারী-শিশুদের প্রতি সহিংসতা ও যৌন নির্যাতন প্রতিরোধ বিষয়ে সেরা সাংবাদিকদের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন বক্তারা। জাতীয় প্রেস ক্লাবে উইমেন জার্নালিস্টস নেটওয়ার্ক বাংলাদেশ ও নারী উন্নয়ন শক্তি যৌথভাবে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি। অনুষ্ঠানে জাতীয় ও স্থানীয়ভাবে সারা দেশ থেকে সেরা ছয়জনকে পুরস্কৃত করা হয়।

প্রিন্ট মিডিয়া ক্যাটাগরিতে প্রথম পুরস্কার পেয়েছেন দৈনিক জনকণ্ঠের স্টাফ রিপোর্টার ওয়াজেদ হীরা, দ্বিতীয় পুরস্কার পান নিউএজের কুমিল্লা প্রতিনিধি ইয়াসমিন রীমা এবং তৃতীয় যুগান্তরের সাংবাদিক রীতা ভৌমিক। টেলিভিশন ক্যাটাগরিতে প্রথম পুরস্কার পান এসএ টিভির সিনিয়র রিপোর্টার ফারজানা শোভা, দ্বিতীয় সময় টিভির স্টাফ রিপোর্টার শাতিলা শারমীন ও তৃতীয় নিউজ ২৪-এর কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি হুমায়ুন কবির সূর্য।

জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার (বাসস) ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, নারী উন্নয়ন শক্তির নির্বাহী পরিচালক ড. আফরোজা পারভীন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন উইমেন জার্নালিস্টস নেটওয়ার্ক বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক আঙ্গুর নাহার মন্টি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, সাংবাদিকতা একটি চ্যালেঞ্জিং পেশা। এই পেশাতেও নারীরা ভালো করছে। তারা পুরস্কৃত হচ্ছে।



মন্তব্য