kalerkantho


সড়ক বন্ধ করে পশুর হাট নয়

ভল্টের স্বর্ণ ভল্টেই রয়েছে : সেতুমন্ত্রী

টঙ্গী (গাজীপুর) প্রতিনিধি   

১৯ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



আসন্ন ঈদুল আজহায় সড়ক-মহাসড়ক বন্ধ করে কোনো প্রকার পশুর হাট বসানো যাবে না বলে হুঁশিয়ার করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বাংলাদেশ ব্যাংকে ভল্টে রাখা সোনা নিয়ে দুর্নীতির খবরে বিএনপির অভিযোগ সম্পর্কে মন্ত্রী বলেন, ‘ভল্টের স্বর্ণ ভল্টেই আছে। বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃপক্ষ আমাদের সেটা নিশ্চিত করেছে।’

গতকাল বুধবার দুপুরে টঙ্গীতে সড়ক ও জনপথ বিভাগের কার্যালয়ে আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে যানজট নিরসনকল্পে করণীয় নির্ধারণ বিষয়ক সভায় সভাপতির বক্তব্য দেন ওবায়দুর কাদের।

একই দিন জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বিএনপির মানববন্ধনে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দেশের বর্তমান দুর্নীতি পরিস্থিতির বিষয়ে বলেছেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের ভল্টে সোনা রাখার পর সেটা বদলে মিশ্র ধাতু রাখা হয়েছে। অলংকারগুলো বদলে সেখানে নকল জিনিস রাখা হয়েছে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, বিএনপি এটাকে একটা ইস্যু হিসেবে দাঁড় করাতে আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছে। তথ্য যাচাই না করেই বাংলাদেশ ব্যাংকের ভল্ট থেকে স্বর্ণ লুট করে নিয়ে গেছে এমন কথা বলে বেড়াচ্ছে। আসলে এটা একটা ক্লারিক্যাল (করণিক) ভুল।

বর্তমান সরকারের সময় দেশে প্রতিটি নির্বাচন কোনো প্রকার সহিংসতা ও রক্তপাত ছাড়াই অনুষ্ঠিত হচ্ছে দাবি করে ওবায়দুল কাদের বলেন, আগামী জাতীয় নির্বাচনও তাই হবে। তিনি বিএনপির প্রতি ইঙ্গিত করে বলেন, বিএনপি নির্বাচনের আগেই হেরে যায়। বিগত বছরগুলোতে বিএনপি বারবার হুংকার দিলেও তারা কোনো আন্দোলন গড়ে তুলতে পারেনি। সেতুমন্ত্রী বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, কোনো অজুহাতেই যত্রতত্র নির্মাণসামগ্রী ফেলে রাখা যাবে না। কোথায়ও রাস্তা ও ড্রেনের কোনো স্লাব উল্টে রাখা যাবে না। সংস্কারকাজের নামে সড়ক-মহাসড়কে যেন যানজটের সৃষ্টি না হয় সেদিকে সংশ্লিষ্ট সকলকে দৃষ্টি রাখতে হবে। কথায় নয় কাজ করে দেখাতে হবে।

আসন্ন ঈদুল আজহার অন্তত ১০ দিন আগে থেকে সড়ক-মহাসড়কের নির্মাণ ও সংস্কারকাজ বন্ধ রাখার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন সেতুমন্ত্রী। তিনি বলেন, ঈদের আগে মহাসড়কে ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ রাখতে হবে এবং ফিটনেসবিহীন লক্কড়ঝক্কড় লেগুনা, ইজিবাইক, অটোরিকশাসহ অন্যান্য গাড়ি বন্ধ রাখতে হবে। ঈদের আগেই লাইসেন্সবিহীন গাড়ি ও চালকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন মন্ত্রী। অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন গাজীপুর জেলা প্রশাসক ড. দেওয়ান মোহাম্মদ হুমায়ুন কবীর, গাজীপুর সিটি মেয়র জাহাঙ্গীর আলম, গাজীপুর জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন-অর-রশিদ, সড়ক ও জনপথ বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।



মন্তব্য