kalerkantho


নারীর ফাঁদ পেতে সিমেন্ট কম্পানির কর্মকর্তা অপহরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



রাজধানীর পুরান ঢাকার বাসিন্দা একটি সিমেন্ট কম্পানির কর্মকর্তাকে নারীর ফাঁদ পেতে অভিনব কায়দায় অপহরণ করে একটি চক্র। চার দিন পর অপহরণকারী ওই চক্রের পাঁচ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলো সবুজ, বশির, ফারুক, লাভলু ও জালাল মিয়া। এ সময় অপহৃত ওই ব্যক্তিকেও উদ্ধার করা হয়। অপহৃত ব্যক্তির নাম আব্দুল হক রাজ (৬১)। তিনি শাহ্ সিমেন্ট কম্পানিতে বিক্রয় কর্মকর্তা পদে চাকরি করেন।

সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, গ্রেপ্তার হওয়া চক্রটি বেশ ক’বছর ধরে এ ধরনের অপকর্ম চালিয়ে আসছিল। সিমেন্ট কম্পানির বিপণন বিভাগের কর্মকর্তা আব্দুল হক রাজকে গত ১২ জুলাই আশা নামের এক নারী ফোন করে কনস্ট্রাকশন কাজের জন্য সিমেন্ট ক্রয়ের কথা জানান। এ জন্য রাজকে গেণ্ডারিয়ায় দেখা করতে বলেন। সেখান থেকে কনস্ট্রাকশনের জায়গা দেখাতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে টঙ্গীতে একটি বাসায় নিয়ে আটকে রাখা হয় রাজকে। পরে পরিবার ও প্রতিষ্ঠানের কাছে চাওয়া হয় মুক্তিপণ। পুলিশকে জানানোর পর অভিযানে নামে একটি তদন্তকারী দল। গত রবিবার রাতে উদ্ধার করা হয় রাজকে। এ সময় আটক করা হয় পাঁচ অপহরণকারীকে।

গতকাল সোমবার সকালে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে ওয়ারী বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) ফরিদ উদ্দিন জানান, ১২ জুলাই কনস্ট্রাকশন সাইটের কাজ দেওয়ার কথা বলে আশা নামের এক মেয়ে ফোন করে আব্দুল হককে গেণ্ডারিয়ার সোনালী নুপুর কমিউনিটি সেন্টারের সামনে নিয়ে যায়। পরে কনস্ট্রাকশন সাইটের লোকজনের সঙ্গে কথা বলার জন্য টঙ্গীর দত্তপাড়ার একটি বাড়ির তিন তলায় নিয়ে যায়। সেখানে আগে থেকে অবস্থান করা অপহরণকারীরা আব্দুল হককে জোর করে আটকে মারধর করে। অপহরণকারীরা মুক্তিপণ হিসেবে আব্দুল হকের স্বজনদের কাছে বিকাশের মাধ্যমে দুই লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে।

 



মন্তব্য