kalerkantho


মির্জা ফখরুলের অভিযোগ

খালেদা-তারেককে নেতৃত্ব থেকে সরানোর পাঁয়তারা চলছে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৬ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অভিযোগ করেছেন, সরকার গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও) সংশোধন করে বিএনপির নেতৃত্ব থেকে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে সরানোর ষড়যন্ত্র করছে। তিনি বলেন, দলীয় গঠনতন্ত্রের ৭ ধারা বিলুপ্তি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর ‘অপপ্রচার’ ও সরকারি ষড়যন্ত্রের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন। একই সঙ্গে তিনি আগামী শুক্রবার সারা দেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

গতকাল রবিবার দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল এই বক্তব্য দেন। সংবাদ সম্মেলনে দলের নেতা ড. আবদুল মঈন খান, রুহুল কবীর রিজভী, এমরান সালেহ প্রিন্স, আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী, এ বি এম মোশাররফ হোসেন, আবদুস সালাম আজাদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, সরকার বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে কুটিল ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। তাদের মূল উদ্দেশ্য হলো বিএনপি গঠনতন্ত্রে যে ধারা বিলুপ্ত করেছে তার সঙ্গে মিল রেখে অনুরূপ একটি ধারা গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশে (আরপিও) অন্তর্ভুক্ত করা। এরপর ওই ধারার দোহাই দিয়ে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে নেতৃত্ব থেকে সরানোর পদক্ষেপ নেবে।

এক প্রশ্নের জবাবে আশঙ্কা ব্যক্ত করে ফখরুল বলেন, “দলের গঠনতন্ত্র সংশোধন নিয়ে সংসদে গত ১১ জুলাই প্রধানমন্ত্রী বক্তব্য দিয়েছেন। তাঁর বক্তব্য উদ্ভট, অলীক ও অন্তঃসারশূন্য। খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে অসত্য, বানোয়াট অপপ্রচার। আমরা মনে করি, এই বক্তব্য দুরভিসন্ধিমূলক ও সুদূরপ্রসারী চক্রান্তের অংশ। বিএনপির গঠনতন্ত্রের ৭ ধারা পরিবর্তন গত ষষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিলে কাউন্সিলরদের দ্বারা সংশোধিত; যা পরে নির্বাচন কমিশনে জমা দেওয়া হয়। আমাদের দলের দুর্নীতির বিরুদ্ধে অবস্থান স্পষ্টতর করার জন্য কাউন্সিলে দলীয় গঠনতন্ত্রের অংশ দলের সদস্য পদের আবেদনপত্র সংশোধন করে ‘আমি কখনোই দুর্নীতিকে প্রশ্রয় দেবো না’—এই বাক্যটি সংযোজন করা হয়।” তিনি বলেন, ‘ষড়যন্ত্রটা ছিল ১/১১-তে মাইনাস টু থিওরি। এখন ওনারা মাইনাস ওয়ানের চেষ্টা করছেন।’

ফখরুল বলেন, খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে বিএনপিকে ভেঙে ফেলায় ব্যর্থ হয়েই এখন সরকার ভিন্ন কৌশল নিয়ে এগোচ্ছে। তিনি অভিযোগ করেন, সরকার বিভিন্ন সংস্থার মাধ্যমে বিএনপির দলীয় গঠনতন্ত্র এবং নির্বাচন কমিশনের আরপিও সংক্রান্ত কিছু উদ্দেশ্যপূর্ণ প্রতিবেদন গণমাধ্যমে প্রচার ও প্রকাশ করার জন্য মাঠে নেমেছে। এর কপি বিএনপি পেয়েছে উল্লেখ করে তিনি সরকারের নীলনকশার অংশ না হওয়ার জন্য সব গণমাধ্যমের প্রতি আহ্বান জানান।

সারা দেশে বিক্ষোভ : মির্জা ফখরুল বিএনপি চেয়ারপারসনকে মুক্তি ও চিকিৎসা না দেওয়া এবং তাঁর সঙ্গে অবর্ণনীয় ও অমানবিক আচরণ করার প্রতিবাদে আগামী শুক্রবার ২০ জুলাই ঢাকাসহ সারা দেশে জেলা ও উপজেলা সদরে বিক্ষোভ সমাবেশের ঘোষণা দেন। ঢাকায় বিকেল ৩টায় নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ আহ্বান করেন।

 

 



মন্তব্য