kalerkantho


মেঘনায় ডুবে নটর ডেম ভার্সিটির ২ শিক্ষার্থীর মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক, হাওরাঞ্চল ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি   

১৬ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০



মেঘনায় ডুবে নটর ডেম ভার্সিটির ২ শিক্ষার্থীর মৃত্যু

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে মেঘনা নদীতে বেড়াতে এসে সলিলসমাধি হয়েছে নটর ডেম বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থীর। গত শনিবার বিকেলে মেঘনায় নিখোঁজ হওয়ার পর গতকাল রবিবার দুজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তাঁদের মধ্যে সকাল সোয়া ১১টায় রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমান সেতুর কিছুটা দূরে মেঘনা নদীর ভৈরব প্রান্ত থেকে সানজিদা বিনতে তানভীর প্রাপ্তি এবং সন্ধ্যায় সোনারামপুরে ঘটনাস্থলের পাশ থেকে ইশরাফুল মেহরাবের ভাসমান লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

ঘুরতে আসা শিক্ষার্থী রাফসান ও আলভী জানান, তাঁরা সাতজন সহপাঠী গত শনিবার বিকেলে ট্রেনযোগে ঢাকা থেকে ভৈরবে আসেন। সেখান থেকে নৌকা নিয়ে মেঘনা নদীতে ভ্রমণে বের হন। বিকেল ৫টার দিকে আশুগঞ্জ এলাকায় নদীতে নামেন প্রাপ্তি ও মেহরাব। সেলফি তোলার একপর্যায়ে দুজনই তলিয়ে যান। অন্য সহপাঠীরা তাঁদের উদ্ধারের চেষ্টা চালাতে গিয়ে নিজেরাও ঝুঁকির মধ্যে পড়ে। চিৎকার শুনে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে তাদের উদ্ধার করে। তবে প্রাপ্তি ও মেহরাবের কোনো খোঁজ মেলেনি। খবর পেয়ে কিশোরগঞ্জের ভৈরব ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় উদ্ধারকাজে নামে পুলিশ। রাত ৮টার দিকে উদ্ধারকাজ স্থগিত ঘোষণা করা হয়। গতকাল সকাল থেকে নৌবাহিনী ও ময়মনসিংহ ফায়ার সার্ভিসের একাধিক ডুবুরিদল উদ্ধারকাজে নামে।

এরই মধ্যে নিখোঁজদের স্বজনরা এসে মেঘনার তীরে ভিড় জমায়। গতকাল সকাল ১১টার দিকে ঘটনাস্থল থেকে প্রায় দুই কিলোমিটার দূরে কিশোরগঞ্জের ভৈরবের কাঠবাজার এলাকায় প্রাপ্তির লাশ ভেসে ওঠে। এরপর সন্ধ্যার দিকে সোনারামপুর এলাকা থেকে মেহরাবের লাশ উদ্ধার করা হয়। এ সময় স্বজনদের কান্নায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

জানা গেছে, মর্মান্তিক ঘটনার শিকার দুজনই নটর ডেম বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। প্রাপ্তি ঢাকার লক্ষ্মীবাজার এলাকার তানভীর আহমেদের মেয়ে। ইশরাফুল মেহরাবের বাসা ঢাকার মগবাজারে।

পুলিশ জানায়, নিহতদের পরিবারের কোনো অভিযোগ না থাকায় পরিবারের সদস্যদের কাছে গতকাল সন্ধ্যার পর দুই শিক্ষার্থীর মৃতদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে।

 



মন্তব্য