kalerkantho


পদবঞ্চিতদের অভিযোগ

টাকার বিনিময়ে নবীগঞ্জ ছাত্রলীগের কমিটি হয়েছে

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি   

২১ জুন, ২০১৮ ০০:০০



কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসাইন ২০ লাখ টাকার বিনিময়ে হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলা এবং পৌর ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা করেছেন বলে অভিযোগ করেছেন স্থানীয় বিক্ষুব্ধ নেতারা। বুধবার বিকেলে হবিগঞ্জ প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে তাঁরা এই অভিযোগ করেন। তাঁদের দাবি, ‘কিছু নেতার তদবির ও কালো টাকার বিনিময়ে বয়স্ক ও অছাত্রদের দিয়ে কমিটি করা হয়েছে।’

নবীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি আলমগীর চৌধুরী সালমান, মহিনুর রহমান ওহি এবং সাবেক তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক সোহেল মিয়া তালুকদারের নেতৃত্বে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

তাঁরা বলেন, উপজেলা ও পৌর কমিটি জেলা থেকে অনুমোদন দেওয়া হয়। কিন্তু এবার তা না করে কেন্দ্রীয় সম্মেলনের আগের রাতে শাহ ফয়সল তালুকদারকে সভাপতি ও মাহবুবুর রহমান রাজুকে সাধারণ সম্পাদক করে নবীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ এবং মো. বাবলু আহমেদকে সভাপতি ও সিদ্ধার্থ শংকর ভট্টাচার্য্য শুভকে সাধারণ সম্পাদক করে নবীগঞ্জ পৌর ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা করে। উপজেলা সভাপতি শাহ ফয়সলের বয়স ৩১ বছর দুই মাস এবং তিনি অষ্টম শ্রেণি পাস। পৌর কমিটির সভাপতি বাবলু আহমেদের বয়স ২৯ বছর ছয় মাস এবং তিনি মাত্র পঞ্চম শ্রেণি পাস। পৌর কমিটির সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক পৌর এলাকার ভোটারও নন। যদি এই কমিটি বাতিল করা না হয়, তাহলে আন্দোলনসহ আইনের আশ্রয় নেওয়া হবে বলেও ঘোষণা দেন বিক্ষুব্ধ নেতারা।

এ ব্যাপারে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মহিবুর রহমান মাহি বলেন, ‘কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসাইন টাকা নিয়ে কোনো কমিটি দেন না। হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের কমিটি নেওয়ার জন্য এক থেকে দেড় কোটি টাকার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়ে তিনি স্বচ্ছভাবে কমিটি দিয়েছেন। নবীগঞ্জে সম্পর্কের কারণে হয়তো কমিটি দিয়েছেন তিনি। সেখানে অচিরেই নতুনভাবে কমিটি গঠন করার উদ্যোগ নেওয়া হবে।’ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাইদুর রহমান বলন, ‘জাকির হোসাইনের বিরুদ্ধে টাকা নিয়ে কমিটি দেওয়ার অভিযোগ ঠিক নয়। তবে নবীগঞ্জে কমিটি নিয়ে যে বিরোধ দেখা দিয়েছে তা স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করে সমাধানের উদ্যোগ নেওয়া হবে।’

এ ব্যাপারে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইনের সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।



মন্তব্য