kalerkantho


পারিবারিক বিরোধ

কেরানীগঞ্জে ভাইয়ের সঙ্গে ধস্তাধস্তি, ব্যবসায়ীর মৃত্যু

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি   

১৪ জুন, ২০১৮ ০০:০০



কেরানীগঞ্জে পারিবারিক কলহের জের ধরে ছোট ভাইয়ের সঙ্গে ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে মো. কায়কোবাদ (৫৫) নামের এক ব্যবসায়ী মারা যান। গতকাল বুধবার সকালে কেরানীগঞ্জ মডেল থানার কলাতিয়া ইউনিয়নের তালেপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। তিনি স্ট্রোক করে মারা গেছেন বলে মনে করা হচ্ছে। তবে এ ঘটনায় ছোট ভাইকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাঁরা দুজন তালেপুর গ্রামের মৃত আব্বাস উদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ খবর পেয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্ট শেষে ময়নাতদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ মিটফোর্ড হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের মেজো ভাই মো. ডালিম বাদী হয়ে কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় মামলা করার পর পুলিশ নিহতের ছোট ভাই শেখ সাদীকে গ্রেপ্তার করেছে।

কলাতিয়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. শাহ আলম নিহতের পরিবারের সদস্যদের বরাত দিয়ে জানান, নিহতের ছোট ভাই শেখ সাদী দীর্ঘদিন জাপানে থেকে কিছুদিন আগে দেশে ফিরে আসেন। তিনি এখনো অবিবাহিত। তাঁদের বাবার এক খণ্ড সম্পত্তি ছিল পুরান ঢাকায়। ওই সম্পত্তি বিক্রি করে বড় ভাই গ্রামের বাড়িতে দ্বিতল ভবন তৈরি করেন। গতকাল সকালে ছোট ভাই শেখ শাদী বড় ভাই কায়কোবাদের কাছে তাঁর বাবার সম্পত্তির ভাগ চান। এ নিয়ে দুই ভাইয়ের মধ্যে প্রথমে বাগিবতণ্ডা ও পরে হাতাহাতি হয়। একপর্যায়ে বড় ভাই মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। এ সময় তাঁর স্ত্রী-সন্তানরা চিৎকার শুরু করলে আশপাশের লোকজন এসে গুরুতর আহত অবস্থায় কায়কোবাদকে স্থানীয় একটি ক্লিনিকে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

মো. শাহ আলম আরো জানান, খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মিটফোর্ড হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। নিহতের শরীরে আঁচড়ের দাগ রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, ঘটনার সময় তিনি স্ট্রোক করে মারা গিয়ে থাকতে পারেন। তবে ময়নাতদন্ত রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত বিষয়টি নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। এ ঘটনায় নিহতের মেজো ভাই মো. ডালিম বাদী হয়ে কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় ছোট ভাইকে আসামি করে হত্যা মামলা করেছেন। পুলিশ আজ (গতকাল) আসামি শেখ সাদীকে গ্রেপ্তার করেছে।

 

 



মন্তব্য