kalerkantho


হবিগঞ্জে কলায় আগুন

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি   

২৬ মে, ২০১৮ ০০:০০



রোজায় হবিগঞ্জ শহরে বেড়েছে কলার চাহিদা। সেই সঙ্গে বেড়েছে দামও। ফলে বাড়তি দাম দিয়ে কলা কিনতে হচ্ছে শহরবাসীকে।

রোজার আগে প্রতি হালি বড় সাইজের চম্পা কলা বিক্রি হয়েছে ১৬ থেকে ২০ টাকায়। ছোট সাইজেরটা বিক্রি হয়েছে ১০ থেকে ১২ টাকায়। আর প্রতি হালি বড় সাইজের শবরি কলা বিক্রি হয়েছে ৬০ থেকে ৮০ টাকায়, ছোট সাইজ ৩০ থেকে ৪০ টাকায়।

এখন প্রতি হালি চম্পা কলা বড় সাইজ ৪০ টাকা, মাঝারি সাইজ ২০ থেকে ৩০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ছোট সাইজেরটা বিক্রি হচ্ছে ১২ থেকে ১৬ টাকায়। অথচ অন্য সময়ে একই কলা অর্ধেক দামে বিক্রি হয়ে থাকে।

শহরের চৌধুরীবাজারের ব্যবসায়ী ও কলার আড়তদার তাউছ মিয়া জানান, যশোর, ঝিনাইদহ, মধুপুর ও চট্টগ্রাম থেকে তারা চম্পাসহ অন্য কলা এনে থাকেন। রোজার আগে এক ট্রাক কলা কিনতে তাঁদের ৩৫ থেকে ৩৮ হাজার ব্যয় হতো; কিন্তু রোজার শুরুতে কলার দাম বেড়ে ৪৫ থেকে ৫০ হাজার টাকায় গিয়ে দাঁড়িয়েছে। তিনি আরো জানান, আড়ত থেকে প্রতিদিন এক গাড়ি কলা বিক্রি হচ্ছে। প্রতি গাড়িতে ৭৫০ থেকে ৮০০ কলার ছড়ি থাকে। বর্তমানে ২০ টনের বেশি মালামাল পরিবহনের অনুমতি না থাকায় এক গাড়িতে বেশি করে মাল আনা যায় না। এ ছাড়া রাস্তার বিভিন্ন স্থানে ট্রাফিক পুলিশকে ‘বকশিশ’ দিতে হয়। ফলে স্বাভাবিকভাবে কলার দাম অনেক বেড়ে যায়। তাই বেশি দামে বাজারে কলা বিক্রি করতে হচ্ছে।

 

 


মন্তব্য