kalerkantho


টাইপ-১ ডায়াবেটিস সামলে নিতে...

২৫ মে, ২০১৮ ০০:০০



টাইপ-১ ডায়াবেটিস সামলে নিতে...

ধূমপান ত্যাগ

টাইপ-১ ডায়াবেটিস সারে না। একে কড়া নিয়ন্ত্রণের মধ্য রাখলে আপনি দিব্যি সুস্থ থাকতে পারবেন। দেহের বিভিন্ন প্রত্যঙ্গে আক্রমণ চালায় ডায়াবেটিস। এর সঙ্গে দূষিত উপাদান আর মানসিক চাপ রীতিমতো বিষক্রিয়া সৃষ্টি করে। শুধু এ রোগের জন্যই নয়, বহু সমস্যা থেকে বাঁচতে ধূমপান ত্যাগ করতে হবে।

অ্যাভোকাডো

এই ফল ‘সুপারফুড’-এর তালিকায় স্থান করে নিয়েছে। কয়েকটি গবেষণায় প্রমাণ মিলেছে—অ্যাভোকাডো অগ্ন্যাশয়ের ইসলেট কোষকে পুনরুজ্জীবিত করে। আর এ কোষগুলো ইনসুলিন হরমোন উৎপন্ন করে।

খাবারে বিধি-নিষেধ

কার্বোহাইড্রেট খাবার গ্রহণ নিয়ন্ত্রণে রাখুন। বিশেষ করে চিনিকে বয়কট করুন। চিনিযুক্ত খাবার দেহে ভাঙার পর রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা হঠাৎ করেই বৃদ্ধি পায়।

নিয়মিত চেকআপ

টাইপ-১ ডায়াবেটিসকে পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে রাখতে আপনার স্বাস্থ্যগত তথ্য জানতে হবে নিয়মিত বিরতিতে। এ রোগের দীর্ঘমেয়াদি পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আছে। নিয়ন্ত্রণে না থাকলে দীর্ঘ সময় পর দৃষ্টিশক্তি হারানো কিংবা শ্রবণশক্তি নষ্ট হওয়া বিচিত্র নয়।

জীবনযাপনে পরিবর্তন

ব্যায়াম শুরু করুন। যাঁরা আগে থেকেই করেন তাঁরা প্রয়োজনে আরো বেশি সময় দিন। জীবনযাপন পরিবর্তনের মাধ্যমে ডায়াবেটিসের সঙ্গে স্থূলতা, কার্ডিওভাসকুলার ডিজিজ ও উচ্চ রক্তচাপ সামলে রাখা উচিত। আসলে দেহের বিপাকক্রিয়া সুষ্ঠু রাখলে এবং পরিশ্রম করলে সুস্থ থাকা সম্ভব।

নাইজেলা স্যাটিভা

এই হারবাল খাবারটি বিখ্যাত না হলেও যথেষ্ট ক্ষমতাধর ও বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে সুপরিচিত। একে প্রায় সময় ‘ব্ল্যাক সিড’ বলে ডাকা হয়। অগ্ন্যাশয়ে বেটাসেল গঠনে সহায়ক। ডায়াবেটিসের প্রভাবকে দূরে রাখতে বেছে নিতে পারেন নাইজেলা স্যাটিভা।

স্ট্রেস কমান

উদ্বেগ ও মানসিক চাপ দেহের নানা ক্ষতির জন্য দায়ী। ইয়োগা, মেডিটেশন, ম্যাসাজ, শ্বাস-প্রশ্বাসের থেরাপি ও ব্যায়ামের মাধ্যমে মানসিক চাপ থেকে মুক্তি মেলে।    

অর্গানিক ফ্যাক্টস অবলম্বনে সাকিব সিকান্দার


মন্তব্য