kalerkantho


রিজভী বললেন

খালেদাকে তিলে তিলে বিপন্ন করাই সরকারের উদ্দেশ্য

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৪ মে, ২০১৮ ০০:০০



বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী অভিযোগ করে বলেছেন, এখন পর্যন্ত দেশনেত্রীকে অর্থোপেডিক বেড দেওয়া হয়নি। বিশেষায়িত হাসপাতালে এমআরআই পরীক্ষার রিপোর্ট অগ্রাহ্য করছে কারা কর্তৃপক্ষ। সরকারের গঠিত মেডিক্যাল বোর্ড এসব পরামর্শ দিয়েছিল কিন্তু কারা কর্তৃপক্ষ তা কানে তুলছে না। কারণ কর্তৃপক্ষের পেছনে দাঁড়িয়ে আছে সরকারি হুংকার। খালেদা জিয়াকে সুচিকিৎসার বন্দোবস্ত না করা সম্পর্কে আমরা যে কথাগুলো বলেছি অর্থাৎ তাঁকে দুঃসহ জীবন-যাপনে বাধ্য করে তিলে তিলে বিপন্ন করে তোলাই সরকারের মুখ্য উদ্দেশ্য। সেটাই তারা বাস্তবায়িত করছে।

গতকাল বুধবার দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে রিজভী এ কথা বলেন।

রিজভী বলেন, মঙ্গলবার পুরান ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারে দেশনেত্রীর সঙ্গে তাঁর নিকট আত্মীয়রা দেখা করেছেন। ম্যাডামের ঘাড় ও বাম হাতে অবিরাম ব্যথা হচ্ছে। দুই পায়েও ক্রমাগত ব্যথা হচ্ছে। সেগুলো ভারী ও ফুলে উঠেছে। চোখ সারাক্ষণ জ্বালাপোড়া করছে। এর সঙ্গে বহুপ্রাচীন দেয়ালগুলো থেকে ঝরে পড়া সিমেন্ট ও বালি চোখ দুটোর অবস্থা আরো গুরুতর অবনতির দিকে ঠেলে দিচ্ছে। ব্যথায় চোখ দুটো সব সময় লাল হয়ে থাকে। স্যাঁতসেঁতে জরাজীর্ণ ভবনটি বাসযোগ্য নয়। এটি অসুখ-বিসুখ আক্রমণের কেন্দ্রস্থলে পরিণত হয়েছে। অসংখ্য পোকামাকড় কক্ষটিতে বসবাস করায় এটি যেন নরক। কক্ষটি ভেজা-ভেজা ও অস্বাস্থ্যকর ধুলাকীর্ণ থাকার কারণে তাঁর প্রচণ্ড কাশি প্রতিদিন বেড়েই চলেছে। বিএনপির এই নেতা বলেন, দেশব্যাপী মাদক নির্মূল অভিযানে মানুষ হত্যার আতিশয্যে এক বিকারগ্রস্ত পন্থা চারদিকে দৃশ্যমান হচ্ছে। গত ৯ দিনে গণমাধ্যমের রিপোর্ট অনুযায়ী বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে ৪৩ জন।



মন্তব্য