kalerkantho


বাসে পা হারানো রোজিনা এখন ঢাকা মেডিক্যালে

চালকের জামিন মঞ্জুর

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৬ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০



বনানীতে বাসের চাপায় পা হারানো রোজিনাকে (১৮) পঙ্গু হাসপাতাল থেকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। চিকিৎসকরা বলছেন, অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে গতকাল বুধবার দুপুর ১টায় পঙ্গু হাসপাতাল থেকে রেফার্ড করা হয়েছে। ঢাকা মেডিক্যালের বার্ন ইউনিটের হাই ডিপেন্ডেন্সি ইউনিটে (এইচডিইউ) তাঁকে রাখা হয়েছে। 

এদিকে গ্রেপ্তার হওয়া ওই বিআরটিসি বাসের চালক শফিকুল ইসলামকে জামিন দিয়েছেন আদালত। গতকাল ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম কেশব রায় চৌধুরী তার জামিন মঞ্জুর করেন।

ঢাকা মেডিক্যালের বার্ন ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন কালের কণ্ঠকে জানিয়েছেন, আজ বৃহস্পতিবার সকালে রোজিনার চিকিৎসায় মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হবে। এরপর পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ করা হবে। তা ছাড়া পরবর্তী সময়ে তাঁর প্লাস্টিক সার্জারির প্রয়োজন হতে পারে। তবে এখন তাঁকে শারীরিকভাবে সুস্থ করে তোলাটাই প্রধান কাজ।

পঙ্গু হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. তাপস কুমার রায় বলেন, ‘রোজিনার শারীরিক অবস্থা ভালো ছিল না। সে কারণেই আমরা তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেছি।’

রোজিনার বাবা রসুল মিয়া বলেন, রোজিনার শরীর ফুলে গেছে। তাঁর অবস্থা ভালো নেই। এ কারণে পঙ্গু হাসপাতালের ডাক্তাররা তাঁকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত ২০ এপ্রিল রাত ৯টার দিকে বনানীতে বিআরটিসির একটি দোতলা বাস রোজিনাকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে তাঁর পায়ের ওপর দিয়ে চলে যায়। পরে উদ্ধার করে পঙ্গু হাসপাতালে নেওয়ার পর অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে তাঁর ডান পা কেটে ফেলতে হয়। ওই দিনই বাসের চালক শফিকুলকে পুলিশ আটক করে, পরে আদালতের মাধ্যমে রিমান্ডে নিয়েছিল। রোজিনা নিকেতনের ১২ নম্বর সড়কে সাংবাদিক ইশতিয়াক রেজার গৃহকর্মী হিসেবে কাজ করতেন।



মন্তব্য