kalerkantho


বিশ্ব বই দিবসের আলোচনাসভার বক্তারা

ভালো মানুষ হতে হলে ভালো বই পড়তে হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৪ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০



‘ভালো মানুষ হতে হলে ভালো বই পড়তে হবে। ভালো বই পড়ার প্রতি ছাত্রছাত্রীদের আকৃষ্ট ও অনুপ্রাণিত করতে হবে। মানবিক মূল্যবোধসম্পন্ন পূর্ণাঙ্গ মানুষ তৈরিতে বইয়ের গুরুত্ব অপরিসীম। আলোকিত নতুন প্রজন্ম গড়ে তোলার জন্য বই পড়ার বিকল্প নেই।’ গতকাল সোমবার বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র মিলনায়তনে ‘আলোকিত প্রজন্মের জন্য সৃজনশীল বই পড়ার গুরুত্ব’ শীর্ষক আলোচনাসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এসব কথা বলেন। বিশ্ব বই ও কপিরাইট দিবস উদ্‌যাপন উপলক্ষে বাংলাদেশ ইউনেসকো জাতীয় কমিশন এবং বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র যৌথভাবে এ আলোচনাসভার আয়োজন করে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের সহযোগিতায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সেকেন্ডারি এডুকেশন এনহান্সমেন্ট (সেকায়েপ) প্রকল্পের মাধ্যমে ২০১০ সাল থেকে পর্যায়ক্রমে ২৫০টি উপজেলায় ১২ হাজার ১১৭টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পাঠাভ্যাস উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়িত হয়েছে। এ প্রকল্পের মাধ্যমে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ৮৩ লাখ ছাত্রছাত্রী বই পড়ার সুযোগ পেয়েছে। স্কুল-মাদরাসার লাইব্রেরিগুলোতে ৩৫ লাখ ৬৭ হাজার বই দেওয়া হয়েছে। পুরস্কার হিসেবে আরো ৪৫ লাখ ৪৩ হাজার বই বিজয়ী পাঠকদের দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, এ প্রকল্পের আওতায় ২৫০টি উপজেলার ১৪ হাজার সহকারী লাইব্রেরিয়ান ও সহকারী শিক্ষককে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বই পড়া কর্মসূচি পরিচালনা বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। এ কর্মসূচির আওতায় ছাত্রছাত্রীদের বই পড়ার অভ্যাস বৃদ্ধি পেয়েছে।

সভাপতির বক্তব্যে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের সভাপতি অধ্যাপক আব্দুল্লাহ আবু সায়ীদ বলেন, ‘৪০ বছর ধরে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র কাজ করছে। প্রথমে ১০ জনকে নিয়ে শুরু করেছিলাম। গত ডিসেম্বর পর্যন্ত পাঠক হয়েছে ২২ লাখ। ডিসেম্বর পর্যন্ত শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সেকায়েপ প্রকল্প আমাদের সঙ্গে যুক্ত ছিল। এখন না থাকলেও আমরা থামিনি। আগের মতোই প্রগ্রাম চলছে।’

তিনি বলেন, ‘বই দুই ধরনের। পাঠ্য বই ও সৃজনশীল বই। আমাদের প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা অপরিহার্য। কিন্তু সেটাই সম্পূর্ণ নয়। অনানুষ্ঠানিক শিক্ষাও দরকার, যার মাধ্যমে আমাদের দৃষ্টিভঙ্গি খুলে যায়। সারা পৃথিবীকে দেখতে পাই। যে দেশ যত বেশি উন্নত সে দেশে তত বেশি পাঠক।’

বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান বলেন, ‘বই সভ্যতা নির্মাণ করে। বই সংস্কৃতমনা, বিজ্ঞানমনস্ক মানুষ তৈরি করে। বই একদিকে যেমন মানবিক, গণতান্ত্রিক, যুক্তিবাদী হিসেবে আমাদের তৈরি করে, অন্যদিকে ধর্মান্ধতা প্রতিহত করে।’

অনুষ্ঠানে বিশ্ব বই দিবসকে জাতীয়ভাবে পালনের প্রস্তাব করা হয়। শিক্ষামন্ত্রী এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের আশ্বাস দেন।


মন্তব্য