kalerkantho


কালের কণ্ঠ’র ভৈরব প্রতিনিধি আব্দুল্লাহ আল মনসুর প্রয়াত

নিজস্ব প্রতিবেদক, হাওরাঞ্চল   

২৪ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০



দৈনিক কালের কণ্ঠ’র ভৈরব প্রতিনিধি, ক্রীড়া সংগঠক আব্দুল্লাহ আল মনসুর (৫২) আর নেই। গতকাল সোমবার সকালে ভৈরবের একটি হাসপাতালে তিনি শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। ভৈরব প্রেস ক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মনসুর ভৈরব শহরের ভৈরবপুর দক্ষিণপাড়া গ্রামের প্রয়াত আব্দুল হাসিম মিয়ার ছেলে।

জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত তিনি ভৈরব উপজেলা আওয়ামী লীগের ক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক ও উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে গেছেন। এ ছাড়া তিনি ভৈরব ওষুধ ব্যবসায়ী সমিতিরও সভাপতি ছিলেন। 

পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে জানা যায়, তিন মাস আগে তাঁর লিভার সিরোসিস ধরা পড়ে। পরে তাঁকে ভারতের হায়দরাবাদ ও দিল্লির দুটি হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়। ১০ দিন আগে দেশে ফিরলে তাঁকে ঢাকার ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গত রবিবার বিকেলে ঢাকা থেকে বাড়ি ফিরিয়ে আনলেও তাঁকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রাখা হয়। গতকাল সকাল ৮টায় সেখানে তিনি মারা যান।

মনসুরের বড় ভাই, কিশোরগঞ্জ সৈয়দ নজরুল মেডিক্যাল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ও শিশু বিশেষজ্ঞ ডা. আব্দুল্লাহ আল মারুফ জানান, মনসুরের চিকিৎসায় কোনো প্রকার ত্রুটি হয়নি। পরিবারের পক্ষ থেকে যথাযথ চিকিৎসা করিয়ে তাঁকে সারিয়ে তোলার সর্বাত্মক চেষ্টা করা হয়েছিল।

ভৈরবের জনপ্রিয় মুখ ছিলেন আব্দুল্লাহ আল মনসুর। প্রাণোচ্ছল স্বভাবের এ মানুষটি সব মানুষকে হাসিমুখে বরণ করে নিতেন। তাঁর এই অকাল মৃত্যুতে ভৈরবে নেমে আসে শোকের ছায়া।

দৈনিক বাংলাবাজার পত্রিকায় তাঁর সাংবাদিকতা জীবন শুরু। আর জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত তিনি দৈনিক কালের কণ্ঠ ও দেশ টিভির ভৈরব প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে গেছেন। মাঝখানে কিছুকাল তিনি যায়যায়দিন পত্রিকায় কাজ করেছেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, দুই মেয়ে, দুই ভাই ও তিন বোনসহ অসংখ্য আত্মীয়স্বজন ও শুভানুধ্যায়ী রেখে গেছেন।


মন্তব্য