kalerkantho


ভারতীয় কূটনীতিক বললেন

আস্থা ও বিশ্বাসের সম্পর্ক অব্যাহত রাখতে চায় দিল্লি

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

৭ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্কে গত ১০ বছরে যে আস্থা ও বিশ্বাস সৃষ্টি হয়েছে, ভারত তা অব্যাহত রাখতে চায় বলে জানিয়েছেন ঢাকায় ভারতীয় এক কূটনীতিক। তিনি আরো জানান, গণতন্ত্র ও জনগণের ওপর ভিত্তি করেই বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক এগিয়ে যাচ্ছে এবং নতুন একটি মাত্রা পেয়েছে। ভারত এ দেশের সব দলের জন্য উন্মুক্ত এবং সবার সঙ্গে যোগাযোগ রাখে।

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে দলটির একটি প্রতিনিধিদলের আসন্ন ভারত সফর এবং এ দেশের আগামী নির্বাচনপ্রক্রিয়ায় ভারতের সম্ভাব্য সমর্থন বিষয়ে জানতে চাইলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ভারতীয় ওই কূটনীতিক বলেন, ‘ওই প্রতিনিধিদলটির সফরকে অন্যভাবে ব্যাখ্যা করবেন না। এটি দুই দেশের রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে সম্পর্ক ও যোগাযোগ। আওয়ামী লীগের সঙ্গে ভারতের কংগ্রেসের নিবিড় সম্পর্ক আছে। ২০১২ সালে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া নয়াদিল্লি সফরের সময়ও রাজনীতিকদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছিলেন।’

ওই কূটনীতিক বলেন, ‘আমরা সব দলের সঙ্গেই যোগাযোগ রাখি। ভারতের প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ দেশে যখন এসেছিলেন, তখনো তিনি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করেছিলেন। আবার প্রেসিডেন্ট যখন এসেছিলেন তখন তিনি সাক্ষাৎ করেননি।’

ওই কূটনীতিক বলেন, ‘আমি বলতে চাই, আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি বা বিএনপি যে-ই হোক না কেন, আমরা সব দলের জন্যই উন্মুক্ত। আমরা বাংলাদেশের গণতন্ত্র, জনগণকে সমর্থন করি। এগুলোই আমাদের সম্পর্কের ভিত্তি।’

জনপ্রিয় লেখক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের ওপর হামলার নিন্দা জানিয়ে ওই কূটনীতিক বলেন, হামলাকারী চক্র বাংলাদেশের মঙ্গল চায় না। ২০১৪ ও ২০১৫ সালের মতো যাতে এ দেশে আবারও উগ্রবাদীরা সক্রিয় হয়ে উঠতে না পারে সে জন্য সবার আরো সজাগ থাকা প্রয়োজন।

ভারতীয় ওই কূটনীতিক বলেন, গত বছর ৩০ লাখ মানুষ বেনাপোল-পেট্রাপোল সীমান্ত চেকপোস্ট দিয়ে ভারতে যাওয়া-আসা করেছে। দৈনিক হিসাবে এ সংখ্যা প্রায় আট হাজার ২২০ জন। ওই চেকপোস্ট ছাড়া অন্য অভিবাসন চেকপোস্টগুলো দিয়েও দুই দেশের লোকজনের যাতায়াত, যোগাযোগ বেড়েছে। তিনি বলেন, ২০১৬ সালে বাংলাদেশে সাত লাখ ভারতীয় ভিসা ইস্যু করা হয়েছিল। গত বছর তা ১৪ লাখে উন্নীত হয়েছে। আগামী দিনগুলোতে ভিসা আরো সহজ করার এবং মানুষে মানুষে যোগাযোগ আরো বাড়ানোর চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। বর্তমানে বাংলাদেশে প্রতিদিন সাত হাজার ভারতীয় ভিসা দেওয়া হচ্ছে।

ভারতীয় ওই কূটনীতিক বলেন, বাংলাদেশে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারের গত প্রায় ১০ বছরে ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক যতটা উল্লেখযোগ্য মাত্রায় এগিয়েছে, তা আগের ৩৫ বছরেও হয়নি। স্থলসীমান্ত চুক্তির সফল বাস্তবায়ন, সমুদ্রসীমা বিরোধের সমাধানের উদাহরণ দেওয়ার পাশাপাশি তিনি বলেন, গত বছরে ১০৮টি চুক্তি হয়েছে। সেগুলোর বেশির ভাগই নতুন নতুন খাতে সহযোগিতার বিষয়ে।


মন্তব্য