kalerkantho


সংসদে বিল পাস

প্রতিরক্ষা বাহিনীর প্রধানদের মেয়াদ অনূর্ধ্ব চার বছর

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



প্রতিরক্ষা বাহিনীর (সেনা, নৌ ও বিমান) প্রধান পদে চাকরির মেয়াদ হবে অনূর্ধ্ব চার বছর। এ ছাড়া অবসরে যাওয়ার পর তাঁরা সাংবিধানিক পদে নিয়োগ পেতে পারবেন। এসব বিধান রেখে জাতীয় সংসদে গতকাল সোমবার একটি বিল পাস হয়েছে।

প্রতিরক্ষা বাহিনীগুলোর প্রধানদের (নিয়োগ, বেতন, ভাতা এবং অন্যান্য সুবিধা) আইন ২০১৮ বিল আকারে সংসদে উত্থাপন করেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। গতকাল তিনি বিলটি পাস করার প্রস্তাব করলে কণ্ঠভোটে তা পাস হয়। বিলটির ওপর জনমত যাচাই-বাছাই কমিটিতে প্রেরণ ও সংশোধনীর প্রস্তাব দেন বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সদস্য ও স্বতন্ত্র সদস্যরা। কণ্ঠভোটে তাঁদের প্রস্তাব নাকচ হয়ে যায়।

পাস হওয়া বিলে বলা হয়েছে, আপাতত বলবৎ অন্য কোনো আইনে বাধা না থাকলে অবসরপ্রাপ্ত কোনো বাহিনীপ্রধান সাংবিধানিক কোনো পদে নিয়োগ লাভের জন্য অযোগ্য বলে গণ্য হবেন না। বাহিনীপ্রধানের নিয়োগের মেয়াদ হবে একসঙ্গে বা বর্ধিতকরণসহ নিয়োগ প্রদানের তারিখ থেকে অনূর্ধ্ব চার বছর। এ ছাড়া প্রতি মাসে বাহিনীপ্রধানের বেতন ৮৬ হাজার টাকা হবে। বাহিনীপ্রধান অবসরপ্রাপ্ত হওয়া বা স্বেচ্ছায় অবসর নেওয়ার পর প্রজাতন্ত্রের কর্মে কোনো সামরিক বা বেসামরিক পদে পুনর্নিয়োগ লাভে অযোগ্য হবেন। তবে রাষ্ট্রপতি জনস্বার্থে আবশ্যক মনে করলে অবসরপ্রাপ্ত কোনো বাহিনীপ্রধানকে চুক্তি ভিত্তিতে প্রজাতন্ত্রের কর্মে কোনো বেসামরিক পদে নিয়োগ দিতে পারবেন।

এর আগে বিলটি সংসদে উত্থাপন করা হলে তা প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়। কমিটি বিলটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও পর্যালোচনা করতে তিন সদস্যের সাবকমিটি গঠন করে। মুহাম্মদ ফারুক খানকে আহ্বায়ক করে গঠিত সাবকমিটিতে সদস্য ছিলেন মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী ও হোসনে আরা বেগম। পরে কমিটির রিপোর্টের ভিত্তিতে বিলটি পাসের চূড়ান্ত সুপারিশ করা হয়।


মন্তব্য