kalerkantho


ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

আন্দোলনে হামলার ঘটনায় তদন্তের আশ্বাস উপাচার্যের

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১৮ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



আন্দোলনে হামলার ঘটনায় তদন্তের আশ্বাস উপাচার্যের

সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে নিপীড়নবিরোধী শিক্ষার্থীরা কার্যালয়ের গেট ভেঙে প্রক্টরকে অবরোধ করে রাখে। ছবি : কালের কণ্ঠ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্তি থেকে রাজধানীর সাত কলেজকে বাতিলের দাবিতে শিক্ষার্থীদের কর্মসূচিতে ছাত্রলীগের হামলা, ছাত্রীদের যৌন হয়রানির প্রতিবাদে গতকাল দিনভর প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করেছে শিক্ষার্থীরা। পরে বিকেলে উপাচার্য তদন্ত কমিটি গঠনের আশ্বাস দিয়েছেন। এর আগে প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানীকে তাঁর কার্যালয়ে চার ঘণ্টা অবরুদ্ধ করে রাখে শিক্ষার্থীরা।

ক্যাম্পাস সূত্রে জানা গেছে, গতকাল সকাল সাড়ে ১১টায় অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে শিক্ষার্থীদের ওপর ‘নিপীড়নকারীদের’ বিচারসহ তিন দাবিতে মানববন্ধন করে শিক্ষার্থীরা। দাবিগুলো হলো সাধারণ শিক্ষার্থীদের কর্মসূচিতে ‘হামলা’ ও ‘ছাত্রীদের যৌন হয়রানি’র সঙ্গে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের সাময়িকভাবে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার, দুজন ছাত্র প্রতিনিধি নিয়ে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তদন্ত কমিটি গঠন এবং ৪৮ কর্মঘণ্টার মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়া। মানববন্ধন শেষে শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে। পরে দুপুর ১২টার দিকে আন্দোলনকারীরা প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানীর কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেয়। এ সময় প্রক্টরের কার্যালয়ের ফটকে তালা দিয়ে আন্দোলনকারীদের ঠেকানোর চেষ্টা করেন প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা। তবে বিক্ষুব্ধ আন্দোলনকারীরা ফটক ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে প্রক্টরকে অবরুদ্ধ করে রাখে। প্রায় চার ঘণ্টা অবরুদ্ধ থাকার পর বিকেল ৪টায় আন্দোলনকারীদের উপাচার্যের কার্যালয়ে নিয়ে যান প্রক্টর। বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান আন্দোলনকারীদের সামনে আসেন। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল, প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানী, বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আব্দুল আজিজ, অধ্যাপক মো. সামাদসহ বেশ কয়েকজন শিক্ষক উপস্থিত ছিলেন। এ সময় আন্দোলনকারীরা তিন দফা দাবি জানালে উপাচার্য তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন। তিনি বলেন, ‘২৪ ঘণ্টার মধ্যে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে। কমিটির প্রতিবেদনের ভিত্তিতে দোষীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’ তবে এর জবাবে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ব্যবস্থা গ্রহণ করা না হলে ফের আন্দোলনে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দেয় আন্দোলনকারীরা।

প্রসঙ্গত, গত সোমবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্তি থেকে সরকারি সাত কলেজকে বাদ দেওয়ার দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে বাধা দেওয়ার অভিযোগ ওঠে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে।



মন্তব্য