kalerkantho


ছাত্রলীগের সম্মেলন হতে পারে ৩১ মার্চ-১ এপ্রিল

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১৩ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



বাংলাদেশের বিভিন্ন আন্দোলন-সংগ্রামে নেতৃত্ব দেওয়া ছাত্রসংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের নতুন নেতৃত্ব নির্বাচনের জন্য ২৯তম সম্মেলন হতে পারে আগামী ৩১ মার্চ ও ১ এপ্রিল। এ দুটি দিনকে ঘিরে সব নেতাকর্মীকে প্রস্তুতি নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

পূর্ব ঘোষণানুযায়ী গতকাল শুক্রবার বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের মোজাফফর আহমেদ চৌধুরী মিলনায়তনে কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির এক জরুরি সভায় এই তারিখ ঘোষণা করা হয়। এই সভায় উপস্থিত কেন্দ্রীয় কমিটির একাধিক নেতা ‘কালের কণ্ঠকে’ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কেন্দ্রীয় কমিটির এক নেতা কালের কণ্ঠকে বলেন, ৮ জানুয়ারি ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে গেলে তিনি ৩১ মার্চ ও ১ এপ্রিল সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করেন। এই ঘোষণাটি আমাদের সভায় জানানো হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও ঢাকা মহানগরের সম্মেলনের তারিখ পরবর্তী সময় জানিয়ে দেওয়া হবে বলে জানানো হয়। এ ছাড়া বাকি জেলার সম্মেলনগুলো দ্রুত করার জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের তাগিদ দেওয়া হয়েছে।

তবে এ বিষয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ সম্মেলনের তারিখ সংবাদ সম্মেলন করে জানানো হবে বলে জানিয়েছেন। তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘সামনে আমাদের সম্মেলন। এ জন্য বর্ধিত সভায় কেন্দ্রীয় নেতাদের নিয়ে বসছিলাম। সেখানে আগামী সম্মেলনের জন্য সব নেতাকর্মীকে প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য বলা হয়েছে।’

প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালের ২৬ ও ২৭ জুলাই ২৮তম সম্মেলনের মাধ্যমে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি গঠিত হয়। ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্রের ১১ (খ) ধারা অনুযায়ী সংগঠনের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের মেয়াদ দুই বছর। সে হিসেবে ছাত্রলীগের চলমান কমিটির মেয়াদ পাঁচ মাস আগেই শেষ হয়েছে। এদিকে মেয়াদ উত্তীর্ণ কমিটি নিয়ে সংগঠনের কার্যক্রম পরিচালিত হওয়ায় অসন্তোষ প্রকাশ করে সংগঠনটির একটা বড় অংশ। তারা সম্মেলনের দাবি জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করার ঘোষণা দিলেও শেষ পর্যন্ত স্থগিত করে। এমতাবস্থায় ৬ জানুয়ারি প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আনন্দ শোভাযাত্রাপূর্ব সমাবেশে ছাত্রলীগকে কেন্দ্রীয় কমিটির সভা ডেকে মার্চে সম্মেলন দেওয়ার কথা বলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। সে সময় তিনি সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে বসে তারিখ ঘোষণার কথা বলেন। পরে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে তাঁরা এই তারিখ ঘোষণা করলেন।



মন্তব্য