kalerkantho


‘বন্দুকযুদ্ধে’ শীর্ষ সন্ত্রাসী পালসার বাবু নিহত

বিশেষ প্রতিনিধি, যশোর   

৭ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের ভাই আব্বাস হোসেন মোল্লা হত্যা মামলার প্রধান আসামি শীর্ষস্থানীয় সন্ত্রাসী বাবু হাসান ওরফে পালসার বাবু র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে। গতকাল শনিবার ভোরে ঝিকরগাছা উপজেলার কাশীপুর ন’হাটি রিফিউজিপাড়া এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এ সময় র‌্যাবের দুই কনস্টেবল আহত হন। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র-গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত পালসার বাবু (৩০) ঝিকরগাছা উপজেলার কাশীপুর গ্রামের খোকন হোসেনের ছেলে।

র‌্যাব-৬ যশোর ক্যাম্পের কমান্ডার মেজর জিয়া জানান, গোপন সূত্রে তাঁরা জানতে পারেন, ঝিকরগাছা উপজেলার কাশীপুর ন’হাটি রিফিউজিপাড়ার একটি বাড়িতে একদল অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী গোপন বৈঠক করছে। এ তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাবের একটি দল সেখানে অভিযান চালায়। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে ওই বাড়ি থেকে সন্ত্রাসীরা গুলি করতে শুরু করে। এতে র‌্যাব সদস্য কনস্টেবল হাসান ও মাহবুব আহত হন। পরে র‌্যাব সদস্যরা পাল্টা গুলি করতে শুরু করেন। উভয় পক্ষের বন্দুকযুদ্ধের মধ্যে পড়ে এক সন্ত্রাসী গুলিবিদ্ধ হয়। বাকিরা পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ গুলিবিদ্ধ সন্ত্রাসীর লাশ উদ্ধার করে নিশ্চিত হয়, নিহত ব্যক্তি সন্ত্রাসী পালসার বাবু।

গত ৩ জানুয়ারি ঝিকরগাছা উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেনের ভাই আব্বাস মোল্লাকে চন্দ্রপুর গ্রামে বাড়ির পাশে বোমা মেরে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। কামাল হোসেন দাবি করেন, ঝিকরগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুসা মাহমুদের অনুসারী পালসার বাবু, রিংকুর নেতৃত্বে ১৫-২০ জন সন্ত্রাসী প্রকাশ্যে বোমা মেরে তাঁর ভাইকে হত্যা করেছে।

ঝিকরগাছা থানার ওসি আবু সালেহ মাসুদ করিম জানান, র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে সন্ত্রাসী পালসার বাবু নিহত হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আব্বাস মোল্লা হত্যাসহ অর্ধডজন মামলা রয়েছে। পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতালে পাঠিয়েছে।



মন্তব্য