kalerkantho


আইনমন্ত্রী বললেন

সেবার মান বাড়াতেই নিবন্ধন পরিদপ্তরকে অধিদপ্তর করা হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



সেবার মান বাড়াতেই নিবন্ধন পরিদপ্তরকে অধিদপ্তর করা হয়েছে

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে গতকাল তাঁর কার্যালয়ে ২০১৭ সালের প্রণীত সব আইনের সংকলনগ্রন্থ তুলে দেন আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক। ছবি : বাসস #

সদ্য অধিদপ্তর হওয়া নিবন্ধন পরিদপ্তরের কর্মকর্তাদের উদ্দেশে গতকাল বুধবার আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক বলেছেন, নাগরিক সুবিধা বাড়াতেই নিবন্ধন পরিদপ্তরকে অধিদপ্তরে উন্নীত করা হয়েছে। এ ছাড়া নিবন্ধন সেবা সহজীকরণ ও তা নাগরিকদের দোরগোড়ায় পৌঁছাতে সরকার নানামুখী উদ্যোগ নিয়েছে।

গত মঙ্গলবার নিবন্ধন পরিদপ্তরকে অধিদপ্তরে উন্নীত করে প্রজ্ঞাপন জারি করে আইন মন্ত্রণালয়। পরদিন বুধবার দুপুরে অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা আনিসুল হককে ধন্যবাদ জানাতে গেলে তিনি তাঁদের উদ্দেশে এসব কথা বলেন।

আইনমন্ত্রী জানান, নাগরিক সুবিধা বাড়াতে সরকার সব জেলা ও উপজেলায় আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সংবলিত জেলা রেজিস্ট্রি অফিস ও সাবরেজিস্ট্রি অফিস ভবন নির্মাণ করছে এবং এরই মধ্যে বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে ৪৮টি জেলা রেজিস্ট্রি অফিস ভবন এবং ২৩৩টি সাবরেজিস্ট্রি অফিস ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। আরো শতাধিক ভবন নির্মাণের প্রকল্পে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এ প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে আর কোনো জেলা রেজিস্ট্রার ও সাবরেজিস্ট্রারকে ভাড়া করা অফিসে কাজ চালাতে হবে না। আনিসুল হক জানান, নিবন্ধন পরিদপ্তর ভারতীয় উপমহাদেশের অন্যতম প্রাচীন প্রতিষ্ঠান হলেও ২০১৬ সালের আগে এ প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণের বিশেষ কোনো ব্যবস্থা বাংলাদেশে ছিল না। বর্তমানে তাঁদের দেশের পাশাপাশি বিদেশেও প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

নিবন্ধন পরিদপ্তরের কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘আপনাদের মনে রাখতে হবে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০২১ সালের মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের যে অঙ্গীকার করেছেন, তা বাস্তবায়নে সরকারের সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য ও কর্মসূচি রয়েছে।’ তিনি জানান, এসব লক্ষ্য অর্জনে সরকারের অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি নিবন্ধন অধিদপ্তরকেও এগিয়ে যেতে হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

আনিসুল হকের বক্তৃতাকালে আইন মন্ত্রণালয়ের লেজিসলেটিভ ও সংসদবিষয়ক বিভাগের সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ শহিদুল হক, আইন ও বিচার বিভাগের সচিব আবু সালেহ শেখ মো. জহিরুল হক, নিবন্ধন পরিদপ্তরের মহাপরিদর্শক খান মো. আব্দুল মান্নান, যুগ্ম সচিব মো. হাবিবুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


মন্তব্য