kalerkantho


ঘরে ঢুকে ছাত্রীকে ছুরিকাঘাত

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ   

১৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



এসএসসি পরীক্ষার্থী এক ছাত্রীকে বাড়িতে ঢুকে ছুরিকাঘাত করেছে প্রতিবেশী যুবক। প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে প্রত্যাখ্যাত হয়ে যুবক এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ ছাত্রীর পরিবারের। ঘটনাটি ময়মনসিংহের নান্দাইল পৌরসভার আচাগাঁও মহল্লার। গতকাল বুধবার বিকেলে আক্রান্ত ছাত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ অভিযুক্ত যুবক মাহিন আফরোজ মিয়াদকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

স্বজনরা জানায়, শিক্ষার্থী সাউদা আক্তারের বাবা বাকি বিল্লাহ ব্যবসায়ী। আচারগাঁও মহল্লার জলসিড়ি পরিবহন বাসস্ট্যান্ড এলাকায় তাদের বসবাস। চার বছর ধরে প্রতিবেশী মিয়াদ উত্ত্যক্ত করে আসছিল সাউদাকে। এ নিয়ে পারিবারিকভাবে অভিযোগ করা হলেও বখাটেপনা থামেনি। গতকাল দুপুরে বাসার কাছেই সাউদাদের একটি গাভি বাঁধা ছিল। ক্রিকেট খেলার কথা বলে গাভির রশি খুলে দেয় মহল্লার কয়েক যুবক। এ নিয়ে প্রতিবাদ করলে মিয়াদের সঙ্গে কথা-কাটাকাটি হয় সাউদার মায়ের। কিছুক্ষণ পর মিয়াদ বাসায় ঢুকে সাউদা ও তার মাকে মারধর করে। একপর্যায়ে সাউদাকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায় মিয়াদ। প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

পরে তাকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। সাউদার বুকে ছুরিকাঘাতে পাঁচ সেন্টিমিটার দীর্ঘ ক্ষত হয়েছে বলে চিকিত্সকরা জানিয়েছেন।

সহিংস ঘটনার সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মিয়াদকে আটক করতে পারেনি। তার সহযোগী রুম্মান মিয়াকে আটক করা হয়েছে। গতকাল রাত পর্যন্ত এ বিষয়ে মামলা করা হয়নি।

এদিকে অভিযুক্ত মিয়াদের মা কনা আক্তার বলেন, ‘মিয়াদকে ধরে নিয়ে মারধর করেছে সাউদার পরিবারের সদস্যরা। তখন ধস্তাধস্তিতে পড়ে গিয়ে সাউদা আহত হতে পারে।’


মন্তব্য