kalerkantho


বাংলাদেশ-বঙ্গবন্ধু-শেখ হাসিনাকে নিয়ে কটূক্তি

মাহমুদুর রহমানের বিরুদ্ধে আরো মামলা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১২ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



দৈনিক আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানের বিরুদ্ধে এবার মামলা হয়েছে যশোর, সিলেটসহ কয়েকটি আদালতে। তাঁর বিরুদ্ধে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মানহানি এবং রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ এনে গতকাল সোমবার মামলাগুলো করা হয়।

গত ১ ডিসেম্বর জাতীয় প্রেস ক্লাবে ‘গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে গণমাধ্যমের ভূমিকা’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে দেওয়া বক্তব্যে মাহমুদুর রহমান বলেছিলেন, ‘বাংলাদেশ স্বাধীন রাষ্ট্র নয়। শুধু ভূখণ্ড আর জনগণ থাকলেই স্বাধীন রাষ্ট্র হয় না। এখন বড়জোর একে ভারতের কলোনি বলা যায়। রাষ্ট্রবিজ্ঞানের কোনো সংজ্ঞানুসারে বর্তমানে বাংলাদেশ রাষ্ট্র হিসেবে বিবেচিত হতে পারে না।’ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের গণতন্ত্র ও গণমাধ্যমকে হত্যা করেছেন, কবর দিয়েছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানার কন্যা টিউলিপ রেজওয়ানা সিদ্দিক সম্পর্কেও মাহমুদুর রহমান মিথ্যা ও মানহানিকর মন্তব্য করেন বলে জানা যায়। ওই বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতেই গতকাল মাহমুদুরের বিরুদ্ধে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মানহানি এবং রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ এনে যশোর, সিলেটসহ কয়েকটি আদালতে পৃথক মামলা দায়ের করা হয়। আগের দিন রবিবার কুড়িগ্রাম, দিনাজপুর ও কুষ্টিয়ায় তাঁর বিরুদ্ধে একই অভিযোগে মামলা হয়েছিল।

আমাদের বিশেষ প্রতিনিধি, যশোর জানান, গতকাল মাহমুদুরের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে দণ্ডবিধির ১২৪(ক) ধারায় যশোরের জুডিশিয়াল আমলি আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন যশোর জেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটির সদস্য সদর উপজেলার কাশিমপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মশিয়ার রহমান সাগর। বিচারক মো. শাহিনুর রহমান বাদীর অভিযোগ গ্রহণ করে এ ব্যাপারে আজ মঙ্গলবার আদেশের দিন ধার্য করেন। মামলার অভিযোগে বলা হয়, ওই সেমিনারে মাহমুদুর আওয়ামী লীগ সরকার, বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বঙ্গবন্ধুর নাতনি ব্রিটিশ পার্লামেন্টের সদস্য টিউলিপ সিদ্দিক সম্পর্কে কটূক্তি করেন এবং অসত্য বক্তব্য দেন। এ ছাড়া তিনি জাতির জনকের পরিবারের নিরাপত্তা আইনের বিরুদ্ধে বক্তব্য দেন। একই সঙ্গে মাহমুদুর বাংলাদেশকে বহির্বিশ্বে হেয়প্রতিপন্ন করার উদ্দেশ্যে খুন, গুম নিয়ে অসত্য তথ্য উপস্থাপন করেন, যা রাষ্ট্রদ্রোহের শামিল।

সিলেট অফিস জানায়, গতকাল মাহমুদুর রহমানের বিরুদ্ধে সিলেটের মুখ্য মহানগর হাকিম সাইফুজ্জামান হিরোর আদালতে ৫০০ কোটি টাকার মানহানি মামলা করেছেন মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রাহাত তরফদার। আদালত অভিযোগ আমলে নিয়ে তা তদন্তের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) নির্দেশ দিয়েছেন। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে এসংক্রান্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আদালতের অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট মাহফুজুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলা দায়েরের পর এজলাস থেকে বেরিয়ে বাদী উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন, ‘মাহমুদুর রহমানের বক্তব্যে বাংলাদেশ ও মহান মুক্তিযুদ্ধের প্রতি চরম অবজ্ঞা ও অশ্রদ্ধা প্রকাশ হয়েছে। এতে দেশপ্রেমী কোটি কোটি মানুষ আহত ও ক্ষুব্ধ হয়েছে। আমি নিজেও সংক্ষুব্ধ হয়ে মামলাটি দায়ের করি।’

আমাদের গাইবান্ধা প্রতিনিধি জানান, গতকাল গাইবান্ধা আমলি আদালতে মাহমুদুরের বিরুদ্ধে একটি মামলা (সিআর ৫৮৩/১৭) দায়ের করেন গাইবান্ধা জেলা যুবলীগ সভাপতি সরদার মো. শাহীদ হাসান লোটন। বাদীর আইনজীবী অ্যাডভোকেট নিরঞ্জন কুমার ঘোষ জানান, মামলাটি আমলে নিয়ে বিচারক আগামী ৩০ জানুয়ারি মাহমুদুর রহমানকে আদালতে হাজির হওয়ার জন্য সমন জারি করেছেন।

আমাদের খুলনা অফিস জানায়, গতকাল দুপুরে খুলনা মহানগর হাকিমের আমলি আদালতে মাহমুদুরের বিরুদ্ধে একটি রাষ্ট্রদ্রোহ ও মানহানি মামলা করেন নগরীর ১৬ নম্বর ওয়ার্ডের যুব মহিলা লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট নাজিয়া আহমেদ বর্ণা। আদালতের বিচারক মো. আমিরুল ইসলাম দণ্ডবিধির ১২৩(ক), ১২৪(ক), ৫০১, ৫০২, ৫০৫ ধারায় দায়ের করা মামলাটি আমলে নিয়ে খুলনা সদর থানার ওসিকে তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলার বাদীপক্ষের আইনজীবী খুলনা জেলা বারের সভাপতি ও মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক সরদার আনিছুর রহমান পপলু জানান, মামলায় ঘটনার দিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদেরও আসামি করা হয়েছে। মামলায় আরো ছয়জন আইনজীবীকে সাক্ষী হিসেবে রাখা হয়েছে।


মন্তব্য