kalerkantho


সংবাদ সম্মেলনে ফখরুল

সব দলকে নির্বাচনে আনতে সরকারই বাধ্য হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৮ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সব দলকে নির্বাচনে আনতে সরকারকেই বাধ্য হতে হবে। বিএনপি নাকে খত দিয়ে নির্বাচনে আসবে—প্রধানমন্ত্রীর এমন বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় গতকাল বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে ফখরুল এ মন্তব্য করেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে গতকাল বৈঠক করেন চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির একটি প্রতিনিধি দল। ওই বৈঠক সম্পর্কে জানাতেই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

এর আগে গতকাল বিকেলে গণভবনে সংবাদ সম্মেলন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে তিনি সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, বিএনপি এবার নাকে খত দিয়ে নির্বাচনে আসবে। এ প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘নির্বাচনে যাওয়া না-যাওয়া একটি রাজনৈতিক দলের অধিকার। এটি কারো পৈত্রিক সম্পত্তি নয়। বাংলাদেশের বর্তমান পরিপ্রেক্ষিতে নাকে খত দিয়ে বিএনপির নির্বাচনে যাওয়ার প্রশ্নই উঠতে পারে না। বরং বর্তমানে যারা সরকারে আছেন, তাদের বাধ্য হতে হবে সব রাজনৈতিক দলগুলো যেন নির্বাচনে আসে, তার জন্য উদ্যোগ গ্রহন করা। এটা শুধু বিএনপির কথা নয়, এটা সমগ্র দেশের জনগনের কথা।

এ প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল আরো বলেন, ‘আপনারা নিশ্চয় লক্ষ্য করেছেন, আজকের সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের কাছ থেকে এই প্রশ্ন এসেছে যে, এটা (নির্বাচন) সবচেয় বড় সংকট হয়ে দেখা দিয়েছে। নিরপেক্ষ একটা সরকারের অধীনে নির্বাচন করা—এই প্রশ্নটা জাতির সামনে বড় হয়ে দেখা দিয়েছে। দাম্ভিকতা দিয়ে তো ভবিষ্যতে দেশ শাসন চলবে না। দেশকে এগিয়ে নেওয়া যাবে না, গণতন্ত্রকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দেওয়া যাবে না। ’

তিনি বলেন, ‘যে কথাটা আমরা বারবার বলেছি, আমরা সংঘাত চাই না, অস্থিতিশীলতা চাই না। যাতে শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর করা সম্ভব হয়, গণতন্ত্রকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দেওয়া সম্ভব হয়, জনগনের অধিকার যেন প্রতিষ্ঠিত হয়—আমরা সেটাই চাচ্ছি, জনগণ সেটা চাচ্ছে। যদি প্রধানমন্ত্রী দায়িত্বশীল নেত্রী হন, তাহলে অবশ্যই তাকে এদিকেই চিন্তা করতে হবে এবং জনগণের মনের আশা-আকাঙ্খাটা বুঝতে হবে। ’

বিএনপির সঙ্গে কোনো সংলাপে রাজি নন—সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া এমন বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় ফখরুল বলেন, ‘এটা তাঁর (প্রধানমন্ত্রী) দায়। আজ নির্বাচনের পরিবেশ সৃষ্টি করা এবং সব দলকে নির্বাচনে আনা সরকার প্রধানের দায়। নির্বাচন করবেন কি করবেন না, নির্বাচন হবে কি হবে না, এটার দায়িত্ব তাকেই বহন করতে হবে। ’

চীনের প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠকের ব্যাপারে ফখরুল বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন আমাদের দেশে রোহিঙ্গা নিয়ে যে সমস্যা তৈরি হয়েছে, তা সমাধানে চীনকে মধ্যস্থতার ভুমিকা পালনে অনুরোধ জানিয়েছেন। ’


মন্তব্য