kalerkantho


বাল্যবিয়ে ঠেকিয়ে দিলেন ইউএনও

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি   

১৯ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



নবম শ্রেণিতে পড়া এক ছাত্রীর বিয়ে দিতে পরিবারের প্রস্তুতি ছিল চূড়ান্ত। বরযাত্রী পৌঁছে ছিল কনের বাড়িতে।

কিন্তু এ বাল্যবিয়ে ঠেকিয়ে দিয়েছেন কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা। শুক্রবার রাতে কাঁঠালবাড়ী ইউনিয়নের শিবরাম গ্রামে এ বিয়ের আয়োজন ছিল।

স্থানীয় সূত্র জানায়, পুলিশে কর্মরত মিজানুর রহমান নবম শ্রেণিতে পড়া  মেয়ের বিয়ে ঠিক করেছিলেন রাজারহাট উপজেলার ছিনাই ইউনিয়নের বাঙালপাড়ায়। শুক্রবার রাত ৮টার দিকে বরযাত্রীরা পৌঁছে কনের বাসায়। এর কিছুক্ষণ পরেই সেখানে পৌঁছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। এ অবস্থায় বিয়ের আসর ফেলে পালিয়ে যায় বরসহ বরযাত্রীরা। কনের বাবাও পালিয়ে যেতে সক্ষম হন। কুড়িগ্রাম সরকারি উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত এ ছাত্রীকে বয়স পূর্ণ হওয়ার আগে বিয়ে দেবেন না বলে মুচলেকা দেন কনের মা।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আমিন আল পারভেজ জানান, সময়মতো খবর পাওয়ায় স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সহায়তায় ছাত্রীটির বিয়ে বন্ধ করা গেছে।


মন্তব্য