kalerkantho


প্রধানমন্ত্রীর ভাষণে ‘রোহিঙ্গা গণহত্যার নিন্দা না থাকায়’ ফখরুলের ক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘে দেওয়া ভাষণে ‘মিয়ানমারে গণহত্যার নিন্দা না জানানো’য় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘে দেওয়া বক্তব্যে রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে কথা বলেছেন।

কিন্তু মিয়ানমার যে গণহত্যা চালাচ্ছে, সেই কথাটা তিনি একবারও বলেননি, নিন্দা করেননি। এটি না করার মানে হচ্ছে, তিনি মূল জায়গাটায় যাচ্ছেন না। ’

গতকাল শুক্রবার সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি ভবনে এক আলোচনাসভায় মির্জা ফখরুল বক্তব্য দেন। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার দশম কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে জাতীয়তাবাদী টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার্স অ্যাসোসিয়েশন (জেটেব) এর আয়োজন করে। মির্জা ফখরুলের এই বক্তব্যের মধ্য দিয়ে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭২তম অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণের পর বিএনপির পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া এলো। অনুষ্ঠানে জেটেবের সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কর্মসূচিরও উদ্বোধন করেন বিএনপি মহাসচিব।

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আপনি পুরো জাতিকে সঙ্গে নিয়ে যদি কথা বলেন, মিয়ানমারকে গণহত্যার জন্য দায়ী করেন এবং দেশটির বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক অবরোধ আরোপ করার কথা বলেন, তাহলেই কেবল তারা (মিয়ানমার) বাধ্য হবে এই গণহত্যা বন্ধ করতে এবং বিতাড়িতদের দেশে ফিরিয়ে নিতে। ’ তিনি বলেন, ‘রোহিঙ্গা ইস্যুতে সবার আগে জাতীয় ঐকমত্য সৃষ্টি করা দরকার। এ ঐক্যের মধ্য দিয়েই মিয়ানমারকে বাধ্য করতে হবে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে।

এর বিকল্প নেই। ’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘে শান্তির কথা বলেছেন। অথচ তিনি নিজের দেশে শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে পারেন না, মানুষের জীবনের নিরাপত্তা দিতে পারেন না। তাই জাতিসংঘের প্ল্যাটফর্মে দাঁড়িয়ে তিনি যখন এই কথা (শান্তির কথা) বলেন, তখন সেটাকে আমরা সত্য বলতে পারি না। সেটাকে মিথ্যা ও অপরাধ বলতে চাই। ’

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ফখরুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনাসভায় বিএনপি নেতা আহমেদ আজম খান, আবদুল আউয়াল খান, কাদের গনি চৌধুরী, অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদীন মেজবাহসহ জেটেবের কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।


মন্তব্য