kalerkantho


বিভিন্ন স্থানে পানিতে ডুবে শিশুসহ চারজনের মৃত্যু

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



ঝিনাইদহের মহেশপুরে গতকাল শুক্রবার পানিতে ডুবে আট ও ছয় বছর বয়সী দুই ভাই-বোনের মৃত্যু হয়েছে। রাজবাড়ীতে মারা গেছে আরেক শিশু।

হবিগঞ্জে নদী থেকে উদ্ধার করা হয়েছে এক ব্যক্তির লাশ। গোসল করতে নেমে নিখোঁজ হয়েছিলেন তিনি। এ নিয়ে আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর—

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি জানান, জেলার মহেশপুর পৌরসভার হামিদপুর গ্রামে গতকাল সকালে পানিতে ডুবে মাধুরী (৮) ও মাহবুব (৬) নামের দুই ভাই-বোনের মৃত্যু হয়েছে। এই দুই শিশু উপজেলার সলেমানপুর গ্রামের গোলাম মোস্তফার সন্তান। হামিদপুরে ভাড়া বাড়িতে থাকত তারা। মাধুরী ও মাহবুব মহেশপুর পৌর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যথাক্রমে তৃতীয় ও দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ত।

মহেশপুর এসবিকে ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সাজ্জাদুল ইসলাম সাজ্জাদ জানান, গতকাল সকাল ১০টার দিকে পাঁচ-সাতজন ছেলেমেয়ে পুকুরের পাড় দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিল। সে সময় পা পিছলে মাহবুব পুকুরের পানিতে পড়ে যায়। তাকে তুলতে গিয়ে তার বোন মাধুরীও পুকুরের পানিতে ডুবে যায়।

অন্য ছেলেমেয়েরা ঘটনাটি তাদের বাড়িতে গিয়ে জানালে লোকজন ছুটে এসে অনেক খোঁজাখুঁজির পর পুকুর থেকে তাদের উদ্ধার করে মহেশপুর উপজেলা হাসপাতালে  নিয়ে গেলে ডাক্তার তাদের মৃত ঘোষণা করেন। মহেশপুর থানার ওসি আহমেদ কবির বলেন, পানিতে ডুবে দুই ভাই-বোনের মৃত্যুর ঘটনাটি শুনেছি। পুলিশ পাঠানো হয়েছে। দুই ভাই-বোনের মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

রাজবাড়ী প্রতিনিধি জানান, রাজবাড়ী সদর উপজেলার দাদশী ইউনিয়নের মোহাম্মদপুর গ্রামে গতকাল পানিতে ডুবে সিফাত খান (৮) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। সিফাত স্থানীয় কৃষক একরামুজ্জামান খানের ছেলে। স্থানীয় সিংগা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির ছাত্র সিফাতের দাদা কামাল খান জানান, গতকাল সকালে সিফাত তার ছোট ভাই আলিফকে নিয়ে বাড়ির পাশের পুকুরের পানিতে ফুটবল নিয়ে খেলছিল। এ সময় হঠাৎ করেই সে পানিতে ডুবে যায়। স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, হবিগঞ্জে খোয়াই নদীতে গোসল করতে গিয়ে নিখোঁজ হওয়ার চার ঘণ্টা পর আাারজু মিয়া (২৫) নামের এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে ডুবুরিদল।

আরজু সদর উপজেলার পইল গ্রামের সঞ্জব আলীর ছেলে। স্থানীয় লোকজন জানায়, গতকাল সকাল ৯টায় হবিগঞ্জ শহরের খোয়াই নদীর মাছুলিয়া অংশে গোসল করতে নেমে নিখোঁজ হন আরজু। বিষয়টি হবিগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসকে জানানো হলে তারা ঘটনাস্থলে যায়। পরে সিলেট থেকে ডুবুরিদল গিয়ে দুপুর ১টার দিকে তার লাশ

উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। আরজু মিয়া মানসিক বিকারগ্রস্ত ছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে।


মন্তব্য