kalerkantho


গাংনীতে শিশুকন্যাকে হত্যার পর মায়ের আত্মহত্যা!

মেহেরপুর প্রতিনিধি   

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার ধানখোলা ইউনিয়নের কসবা গ্রামে আদুরী নামের এক নারী ও তাঁর এক বছরের শিশুকন্যার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, শিশুকন্যাকে পুকুরের পানিতে চুবিয়ে হত্যার পর মা আত্মহত্যা করেছেন।

গতকাল দুপুর ৩টায় এ ঘটনা ঘটেছে। আদুরী চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার বড়গাংনী গ্রামের লোকমান হোসেনের স্ত্রী। তাঁর মেয়ের নাম সুমাইয়া।

স্থানীয়দের ধারণা, স্বামীর সঙ্গে কলহের জের ধরে অভিমান করে নানার বাড়ি কসবা গ্রামের কোরবান আলীর বাড়িতে যান আদুরী। সেখানে গিয়ে এক বছর বয়সী শিশুকন্যা সুমাইয়াকে বাড়ির পাশের আজিবার আলীর পুকুরে চুবিয়ে হত্যার পর নিজে নানার বাড়িতে গলায় ওড়না দিয়ে আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন।

গাংনী থানার ওসি আনোয়ার হোসেন জানান, প্রথমে বসতঘর থেকে মায়ের লাশ উদ্ধার করা হয়। পরে শিশুটিকে খুঁজতে গিয়ে দেখা যায় পুকুরের পানিতে তার মৃতদেহ ভাসছে। এ থেকে ধারণা করা হচ্ছে, ক্ষোভের বশবর্তী হয়ে শিশুটিকে হত্যার পর তার মা আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন। দুজনের লাশ উদ্ধার করে মেহেরপুর মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ময়নাতদন্তের পর বোঝা যাবে শিশুটিকে হত্যা করা হয়েছে কি না?


মন্তব্য