kalerkantho


ষোড়শ সংশোধনী নিয়ে রায়

সত্যায়িত কপি তোলেনি রাষ্ট্রপক্ষ

রিট আবেদনকারীপক্ষ নিয়েছে পাঁচ দিন আগেই

এম বদি-উজ-জামান   

২২ আগস্ট, ২০১৭ ০০:০০



সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনীর বৈধতা নিয়ে আপিল বিভাগের দেওয়া পূর্ণাঙ্গ রায়ের সার্টিফায়েড (সত্যায়িত) কপি চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষ ১৬ দিন আগে আবেদন করলেও এখনো তা সংগ্রহ করেনি। তবে ষোড়শ সংশোধনীর বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট আবেদন দাখিলকারীপক্ষ পাঁচ দিন আগে গত ১৬ আগস্ট রায়ের সত্যায়িত অনুলিপি পেয়েছে। রাষ্ট্রপক্ষ কেন সংগ্রহ করেনি তা জানা যায়নি। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, রায়ের কপি প্রস্তুত আছে।

এ বিষয়ে রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমরা ৫ আগস্ট আবেদন করেছি। কিন্তু এখনো তা পাইনি।’

রিট আবেদনকারীর আইনজীবী অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘গত ১৬ আগস্ট আমরা রায়ের সত্যায়িত অনুলিপি পেয়েছি।’ তারা পেলেও রাষ্ট্রপক্ষ কেন এখনো পায়নি জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘রাষ্ট্রপক্ষ কেন পায়নি তা বোধগম্য নয়।’

রায়ের কপি রাষ্ট্রপক্ষকে সরবরাহ করার বিষয়ে হাইকোর্টের অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার (বিচার ও প্রশাসন) মো. সাব্বির ফয়েজ কালের কণ্ঠকে বলেন, নিয়ম অনুযায়ী কেউ আবেদন করলে তা পাওয়ার ক্ষেত্রে কিছু প্রশাসনিক প্রক্রিয়া রয়েছে। এ প্রক্রিয়া সম্পন্ন শেষে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে কপি সরবরাহ করা হয়। সব মিলিয়ে কয়েক দিনের মধ্যেই কপি দেওয়া হয়। ষোড়শ সংশোধনী মামলার রায়ের কপি রাষ্ট্রপক্ষ কেন পায়নি জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘না পেয়ে থাকলে নিশ্চয়ই তারা পেয়ে যাবে।’ 

নিয়ম অনুযায়ী আপিল বিভাগের রায় রিভিউ বা পুনর্বিবেচনার আবেদন করতে হলে রায়ের কপি লাগে। রায় প্রকাশের ৩০ দিনের মধ্যে রিভিউ আবেদন করতে হয়। তবে রায়ের কপি চেয়ে করা আবেদন নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত ৩০ দিনের হিসাব গণনা শুরু হয় না। যেদিন রায়ের কপি সংশ্লিষ্ট আবেদনকারী পান সেদিন থেকেই দিন গণনা শুরু হয়ে থাকে। তবে যদি কোনো পক্ষ আবেদন না করে তবে যেদিন রায় প্রকাশিত হয় সেদিন থেকেই দিন গণনা শুরু হবে। ষোড়শ সংশোধনী মামলার পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশিত হয় গত ১ আগস্ট। এরপর রায়ের সত্যায়িত কপি চেয়ে আবেদন করে রাষ্ট্রপক্ষ ও রিট আবেদনকারীপক্ষ। 

সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিল করে হাইকোর্টের দেওয়া রায়ের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের আপিল গত ৩ জুলাই সর্বসম্মতভাবে খারিজ করে দেন আপিল বিভাগের সাত বিচারপতির পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ। ফলে হাইকোর্টের রায় তথা ষোড়শ সংশোধনী বাতিল আদেশ বহাল থাকে। আপিলের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশিত হওয়ার পর রায়ের পর্যবেক্ষণ নিয়ে দেশের সব মহলে তোলপাড় চলছে। ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে ১৪ দল রায় প্রত্যাখ্যান করেছে। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের প্রধান বিচারপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ করে দলের উদ্বেগ ও দাবির কথা জানিয়েছেন। এরপর তিনি প্রধান বিচারপতির সঙ্গে সাক্ষাতের তথ্য রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেছেন। অপরদিকে বিএনপি এ রায়কে স্বাগত জানিয়েছে। বিএনপির আইনজীবীরা মিষ্টি বিতরণ করেছেন। এ ছাড়া সরকার সমর্থক আইনজীবীরা রায়ের পর্যবেক্ষণ প্রত্যাহারের দাবিতে আন্দোলন করছেন। বিএনপিপন্থী আইনজীবীরাও পাল্টা আন্দোলন করছেন।



মন্তব্য