kalerkantho


কুষ্টিয়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ হত্যা মামলার আসামি নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুষ্টিয়া   

২২ আগস্ট, ২০১৭ ০০:০০



কুষ্টিয়ায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক হত্যা মামলার আসামি নিহত হয়েছে। তার নাম এনামুল হক। সে কলেজছাত্র সাগর সাহা হত্যা মামলার প্রধান আসামি ছিল। গতকাল সোমবার সদর উপজেলার হরিনারায়ণপুরে শিবপুরে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শনিবার রাতে শিবপুরে প্রদীপ সাহার ছেলে সাগর সাহার বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করা হয়। এরপর রবিবার হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহভাজন এনামুলকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। সে হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে স্বীকার করে তার সহকর্মী শিপনের নাম বলে। এরপর পুলিশ সোমবার ভোরে এনামুলকে নিয়ে শিপনকে ধরতে শিবপুরে যায়। ওই সময় কেমু সর্দারের কলাবাগানের কাছে পৌঁছলে হঠাৎ করে সেখানে ওত পেতে থাকা সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। এ সময় এনামুল পালিয়ে যায়। পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। একপর্যায়ে সন্ত্রাসীরা পিছু হটলে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ এনামুলকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিত্সকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানার ওসি রতন শেখ জানান, এ ঘটনায় এসআই রাশেদসহ চারজন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। তাঁরা হাসপাতালে চিকিত্সা নিয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি ৭.৬৫ বোরের পিস্তল, তিন রাউন্ড গুলি ও দেশীয় তৈরি ধারালো হাঁসুয়া উদ্ধার করেছে। এনামুল শিবপুরের গোলাম মোস্তফার ছেলে।

উল্লেখ্য, গত বুধবার সন্ধ্যায় বাজারে যাওয়ার পথে খাতের আলী কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র সাগর সাহাকে অপহরণ করে তার পরিবারের কাছে ৩০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়। ঘটনার পরের দিন সাগর সাহার বাবা এ বিষয়ে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানায় মামলা করেন। এরপর শনিবার রাতে সাগরের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করা হয়।



মন্তব্য