kalerkantho


বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি

সংকটে দুর্গতরা ভঙ্গুর যোগাযোগ ব্যবস্থা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২২ আগস্ট, ২০১৭ ০০:০০



দেশের সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। উত্তর ও মধ্যাঞ্চলের প্রধান প্রধান নদ-নদীর পানি কমলেও বেশির ভাগ নদী বিপত্সীমায় বইছে। বিশুদ্ধ খাবার পানি ও খাদ্য সংকটে দর্গতরা রয়েছে চরম ভোগান্তিতে। বন্যাকবলিত এলাকায় এখনো যোগাযোগব্যবস্থা ঠিক হয়নি। গতকাল সোমবারও বিভিন্ন স্থানে বাঁধ ভেঙে নতুন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। কোথাও কোথাও বাঁধে ফাটল দেখা দিয়েছে।

গতকাল নওগাঁয় পুনর্ভবা নদীতে নৌকা ডুবে আম্বিয়া (৯) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। পানি বৃদ্ধির কারণে নাটোরের সিংড়ার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ৩৩/১১ কেভির উপকেন্দ্র হুমকিতে রয়েছে। গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের বামনডাঙ্গা স্লুইস গেটসংলগ্ন ব্রিজটি ধসে গেছে।

কুষ্টিয়া শহর রক্ষা বাঁধের দুই পয়েন্টে ৩০ মিটার ধস দেখা দিয়েছে। গত রবিবার এই বাঁধের দুটি পয়েন্টে ৩০ মিটার নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। বিস্তারিত আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবরে—

নওগাঁয় বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে। তবে ছোট যমুনা নদীর পানি এখনো বিপত্সীমায় প্রবাহিত হচ্ছে। চলছে বিশুদ্ধ পানি ও পশু খাদ্যের চরম সংকট। গতকাল পোরশা উপজেলার পুনর্ভবা নদীতে নৌকা ডুবে আম্বিয়া (৯) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। সে উপজেলার পুরাতন দিয়াড়াপাড়ার স্বর্ণকার লালু চানের কন্যা ও নিতপুর দাখিল মাদরাসার চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী। গত রবিবার পুনর্ভবা নদীতে সন্ধ্যায় ৯ জন যাত্রীসহ কুড়লবিল এলাকায় নৌকাটি ডুবে যায়। এ সময় অন্য যাত্রীরা সাঁতরে ডাঙ্গায় উঠলেও আম্বিয়া ভেসে যায়।

নাটোরের সিংড়া ও নলডাঙ্গায় বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে। পানি বৃদ্ধির কারণে হুমকির মুখে রয়েছে সিংড়ার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ৩৩/১১ কেভির উপকেন্দ্র। যেকোনো মুহূর্তে বন্ধ হয়ে যেতে পারে উপজেলার বিদ্যুৎ সরবরাহ। এ ছাড়া কালীনগর এবং বলিয়াবাড়ি-চাঁদপুরে আত্রাই নদীর বাঁধ ভেঙে নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। ইতিমধ্যে বন্ধ হয়ে গেছে ৫৯টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের বামনডাঙ্গা স্লুইস গেটসংলগ্ন ব্রিজটি ধসে গেছে। একই সঙ্গে পার্শ্ববর্তী রেল ব্রিজটিও হুমকির মুখে পড়েছে। ফলে গাইবান্ধার সঙ্গে  নলডাঙ্গা-বামনডাঙ্গা ও রংপুর-মিঠাপুকুরের সঙ্গে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। উপজেলা প্রশাসন ও রেলওয়ের পক্ষ থেকে জরুরি ভিত্তিতে বাঁশের পাইলিং দিয়ে সড়ক এবং ব্রিজের পার্শ্ববর্তী ধস বন্ধের প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে। তবে গতকাল সন্ধ্যা পর্যন্ত  তা সম্ভব হয়নি।

এদিকে ব্রহ্মপুত্র, ঘাঘট, তিস্তা ও করতোয়া নদীর পানি কয়েক দিন ধরে কমছে। তবে মানুষের দুর্ভোগ কমেনি।



মন্তব্য