kalerkantho


আশুলিয়ায় অভিযান

গ্রেপ্তার ৪ জঙ্গির বিরুদ্ধে র‌্যাবের দুই মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার   

১৮ জুলাই, ২০১৭ ০০:০০



সাভার উপজেলার আশুলিয়ায় জঙ্গি আস্তানা থেকে সারোয়ার-তামিম গ্রুপের চার জঙ্গিকে আটকের ঘটনায় আশুলিয়া থানায় নাশকতা ও অস্ত্র আইনে দুটি মামলা করেছে র‌্যাব।   গতকাল সোমবার দুপুরে র‌্যাবের ডিএডি শরিফুল ইসলাম খান বাদী হয়ে ওই মামলা দুটি করেন।

আশুলিয়া থানার ওসি আব্দুল আউয়াল মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এ ঘটনায় ওই জঙ্গি আস্তানার বাড়ির মালিক ইব্রাহীম মিয়াকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ছেড়ে দিয়েছে র‌্যাব।

অভিযানের সময় আত্মসমর্পণকারী জঙ্গিদের বিস্তারিত পরিচয় জানা গেছে। আটককৃতরা হলো ময়মনসিংহ জেলার ত্রিশাল থানার সিংকিভাদা গ্রামের আব্দুল মান্না মিয়ার ছেলে মোজাম্মেল হক মাসুদ (১৮), চট্টগ্রাম জেলার রাউজান থানার কদলপুর মোয়াজি গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে ইফরানুল ইসলাম ওরফে সুফিয়ান খান (২১), গাইবান্ধা জেলার ফুলছড়ি থানার উদাখালি গ্রামের রেজাউল করিমের ছেলে রাশেদুল নবী রাশেদ (২২), সুনামগঞ্জ জেলার জামালগঞ্জ উপজেলার গোগলি কৃষ্ণনগর গ্রামের আব্দুল হান্নান মিয়ার ছেলে মো. আলমগীর হোসেন (২১)।

এদিকে জঙ্গি অভিযান পরিচালনার পর থেকে ওই এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। এখনো আতঙ্ক কাটেনি এলাকাবাসীর মধ্যে। জঙ্গি আস্তানার বাড়িটিতে পাহারা দিতে দেখা গেছে র‌্যাব সদস্যদের।  

উল্লেখ্য, গত রবিবার সাভার উপজেলার পাথালিয়া ইউনিয়নের চৌরাবালি এলাকায় একটি বাড়ি জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে র‌্যাব সদস্যরা ঘেরাও করে এবং র‌্যাবকে লক্ষ্য করে ওই বাড়ি থেকে জঙ্গিরা বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি বর্ষণ করে। পরে একে একে চার জঙ্গি আত্মসমর্পণ করে।

র‌্যাবের মিডিয়া ও লিগ্যাল উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাঁরা নিশ্চিত হন ওই বাড়িতে জঙ্গিরা অবস্থান করছে। তাঁদের গোয়েন্দাদের অনুসন্ধানে সত্যতা পাওয়ার পর তাঁরা ওই বাড়িতে অভিযান চালান। তিনি আরো জানান, আটক জঙ্গিরা গুলশানের হটি আর্টিজান বেকারিতে হামলার অন্যতম পরিকল্পনাকারী নব্য জেএমবির নেতা তামিম গ্রুপের সক্রিয় সদস্য। অভিযানে উদ্ধার করা হয় বেশ কিছু তাজা বোমা। পরে সেগুলো  অকার্যকর করা হয়।


মন্তব্য