kalerkantho


রায়পুরায় টেঁটাযুদ্ধ

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও প্রতিবেদকের বক্তব্য

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৮ জুলাই, ২০১৭ ০০:০০



গত ৬ জুলাই কালের কণ্ঠ পত্রিকায় “এমপি রাজুর ‘আদালতে’ হত্যা মামলার বিচার” শিরোনামে প্রকাশিত প্রতিবেদনের প্রতিবাদ জানিয়েছেন নরসিংদীর রায়পুরার সংসদ সদস্য রাজি উদ্দিন আহমেদ রাজুর ছেলে রাজিব আহাম্মেদ পার্থ। প্রকাশিত প্রতিবেদনটিকে ভিত্তিহীন দাবি করে প্রতিবাদপত্রে পার্থ বলেন, ‘আমার বাবা নরসিংদী-৫ আসন থেকে পর পর পাঁচবার নির্বাচিত এমপি এবং আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য।

তাঁর সুনাম ক্ষুণ্ন করতেই এমন প্রতিবেদন। ’

তিনি আরো দাবি করেন, ‘রায়পুরায় কোনো ব্যক্তিগত আদালত কিংবা সিন্ডিকেট নেই। আর টেঁটাযুদ্ধের পর আপস মীমাংসার মাধ্যমেই সমাধান হয়ে থাকে সাধারণত। দুই পক্ষই এমনটি চায়। অতীতে দেখা যায়, এই ধরনের কোনো দ্বন্দ্বই মামলা-মোকদ্দমার মাধ্যমে শেষ হয়নি। বরং মামলা-মোকদ্দমার মাধ্যমে শেষ করতে চাইলে টেঁটাযুদ্ধ লেগেই থাকবে এবং হত্যা ও ক্ষয়ক্ষতির সংখ্যা বাড়বে। সে জন্যই গণ্যমান্যদের সমন্বয়ে বিবাদ নিরসন কমিটির মাধ্যমেই দ্বন্দ্ব-সংঘাতের সমাধানের চেষ্টা করা হয়। ’

প্রতিবেদকের বক্তব্য : এমপিপুত্র প্রতিবেদনটিকে মিথ্যা ও ভিত্তিহীন দাবি করলেও তাঁর প্রতিবাদপত্রেই টেঁটাযুদ্ধের পর হত্যাসহ ভয়ংকর সব ঘটনা সালিসের মাধ্যমে সমাধানের বিষয়টি উঠে এসেছে। শুধু তাই নয়, বছরের পর বছর বিবাদ নিরসনে কমিটি গঠন করেছেন এবং সেই কমিটিই এসব সমস্যা সমাধান করছে।

শুধু তাই নয়, সালিসের মাধ্যমে আপস মীমাংসা করা এবং মামলা-মোকদ্দমা তুলে নেওয়ার কথা এমপি রাজি উদ্দিন আহমেদ রাজুও কালের কণ্ঠ’র কাছে স্বীকার করেছেন। আর যেসব ঘটনায় খুনের মতো ঘটনা ঘটে তার বিচার সালিসে হতে পারে না।


মন্তব্য