kalerkantho


দুদকের বার্ষিক প্রতিবেদন রাষ্ট্রপতির কাছে পেশ

দুর্নীতির মামলায় গত বছর গ্রেপ্তার ও সাজার হার সবচেয়ে বেশি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৫ মে, ২০১৭ ০০:০০



দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা দুর্নীতির মামলায় অন্য বছরগুলোর তুলনায় গত বছর গ্রেপ্তার ও সাজার হার সবচেয়ে বেশি ছিল বলে সংস্থাটির গত বছরের বার্ষিক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। গত বছর গ্রেপ্তার করা হয়েছে ৩৮৮ জনকে। ২০১৫ সালে সাজার হার ছিল ৩৭ শতাংশ এবং ২০১৬ সালে সাজার হার হয়েছে ৫৪ শতাংশ। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিগত অন্য বছরগুলোর তুলনামূলক পরিসংখ্যান অনুযায়ী ২০১৬ সালে কমিশনের সর্বাধিকসংখ্যক মামলায় আসামিদের সাজা হয়েছে। অন্যদিকে একই প্রতিবেদনে উঠে এসেছে, দুদকের আগের বছরের চেয়ে গত বছর অভিযোগ বেশি জমা পড়লেও যাচাই-বাছাই শেষে মামলা হয়েছে কম। ২০১৬ সালে ১২ হাজার ৯৯০টি অভিযোগ জমা পড়েছিল, এর মধ্যে মামলা হয়েছে ৩৫৯টি। ২০১৫ সালে ১০ হাজার ৪১৫টি অভিযোগের মধ্যে মামলা হয়েছিল ৫২৭টি।

রাষ্ট্রপতির কাছে দুদকের দেওয়া বার্ষিক প্রতিবেদনে এসব চিত্র উঠে আসে। গতকাল বুধবার বিকেলে বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের কাছে ২০১৬ সালের বার্ষিক প্রতিবেদন পেশ করেন দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন কমিশনার ড. নাসিরউদ্দীন আহমেদ, এ এফ এম আমিনুল ইসলাম ও সচিব আবু মো. মোস্তফা কামাল।

প্রতিবেদন জমা দেওয়ার পর দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ সাংবাদিকদের জানান, রাষ্ট্রপতি দুদকের কাজে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন এবং বলেছেন, ‘দুদকের ওপর এখন জনগণের আস্থা ফিরেছে।’ তবে রাষ্ট্রপতি হাওরের দুর্নীতি নিয়ে বেশ উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বলে দুদক চেয়ারম্যান জানান।


মন্তব্য