kalerkantho


কেরানীগঞ্জে পুকুরে ডুবে প্রাণ হারাল রাজধানীর স্কুল ছাত্র

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি   

২৪ মে, ২০১৭ ০০:০০



পুরান ঢাকার ধোলাইখাল এলাকা থেকে স্কুল পালিয়ে বন্ধুদের সঙ্গে কেরানীগঞ্জে ফুটবল খেলতে এসে পুকুরে ডুবে প্রাণ হারিয়েছে এক কিশোর।

গতকাল মঙ্গলবার কেরানীগঞ্জের বামুনশুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় রাতে তার লাশ উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

নিহত কিশোরের নাম সোয়েব (১৫)। সে ধোলাইখালের ঘোয়ালঘাট লেনের মো. রহম উল্লাহর ছেলে। ওয়ারী উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র ছিল সে।

জানা যায়, রাজধানীর ধোলাইখাল এলাকা থেকে বেশ কয়েকজন ছাত্র বামুনশুর এলাকায় গতকাল দুপুরে ফুটবল খেলতে আসে। এরপর তারা সন্ধ্যার আগে ফুটবল নিয়ে বামুনশুর মসজিদ পুকুরে গোসল করতে নামে। সোয়েব সাঁতার জানত না। ফুটবলটি ছিল তার হাতে। একসময় সে পুকুরের মাঝামাঝি চলে যায়। একপর্যায়ে ফুটবলটি তার হাত থেকে ফসকে দূরে চলে যায় এবং সে ডুবে যায়। তার বন্ধুদের চিৎকার শুনে এলাকার লোকজন ছুটে আসে। খবর দেওয়া হয় কেরানীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও থানা পুলিশকে। রাত ৮টার দিকে সোয়েবের লাশ উদ্ধার করা হয়।

সোয়েবের বাবা রহমত উল্লাহ বলেন, ‘সন্ধ্যায় টেলিফোনে জানতে পারি আমার ছেলে স্কুল থেকে পালিয়ে কয়েক বন্ধুর সঙ্গে কেরানীগঞ্জে ফুটবল খেলতে গিয়ে পুকুরে ডুবে গেছে। আমরা সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ঘটনাস্থলে আসি। পরে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিরা আমার ছেলের লাশ উদ্ধার করে।’ কেরানীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের দায়িত্বপ্রাপ্ত মো. মঞ্জুরুল আহসান জানান, স্থানীয় লোকজনের কাছ থেকে খবর পেয়ে তাঁরা ঘটনাস্থলে যান এবং প্রায় এক ঘণ্টা পুকুরে তল্লাশি চালিয়ে সোয়েবের লাশ উদ্ধার করা হয়।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আবু হেনা মো. মোস্তফা রেজা জানান, নিহত কিশোরের পরিবার মামলা করবে না বলে জানিয়েছে। সে কারণে মরদেহ ময়নাতদন্ত না করে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা করা হয়েছে।



মন্তব্য