kalerkantho


কুমিল্লায় সিইসি

আমাদের কোনো ব্যর্থতা নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুমিল্লা   

২১ জানুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



নিজেদের কোনো ব্যর্থতা নেই বলে মনে করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ। তিনি বলেন, ‘আমরা অনেক কাজ করেছি, অনেকগুলো সফল হয়েছে, অনেকগুলো সফলতার কাছাকাছি গেছে। কাজ তো একটা চলমান প্রক্রিয়া। আমরা যে কাজগুলো করেছি, সেগুলো এগিয়ে নিলে এ দেশে নির্বাচনের ক্ষেত্রে আমূল পরিবর্তন ঘটবে।’

গতকাল শুক্রবার বিকেলে কুমিল্লায় আঞ্চলিক সার্ভার স্টেশন ভবন উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে প্রধান নির্বাচন কমিশনার এসব কথা বলেন।

নগরের ছোটরা এলাকায় জেলা নির্বাচন কার্যালয়ের মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠান হয়। অনুষ্ঠান শেষে সন্ধ্যায় কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ গত পাঁচ বছরে নির্বাচন কমিশনের সাফল্য-ব্যর্থতা সম্পর্কে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, বর্তমান নির্বাচন কমিশনের সময়ে প্রথমবারের মতো উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন হয়েছে। জেলা পরিষদ নির্বাচন হয়েছে। অতীতে এসব নির্বাচন আর কেউ করতে পারেনি। তিনি বলেন, বিএনপি জাতীয় নির্বাচনে না এলেও সিটি করপোরেশন নির্বাচনগুলোতে অংশ নিয়েছে।

এক প্রশ্নের জবাবে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, ‘বিদেশেও সব জায়গায় নির্বাচন সুষ্ঠু হচ্ছে না। আমরা ভালো দেশের ভালো নির্বাচনের মতো শান্তিপূর্ণ নির্বাচন করতে পারব। যার ভোট সে দেবে। কেউ কারো ভোট দিতে পারব না।’

কাজী রকিবউদ্দীন বলেন, ‘আগামীতে ডিজিটাল ভোটিং মেশিনের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ করা হবে। এতে নির্বাচন আরো বেশি সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হবে। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নির্বাচন কার্যালয়ের লোকজনদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।’

আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি সিইসি রকিবউদ্দীনের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। ২০১২ সালের ৫ জানুয়ারি ভোটের পর ৯ ফেব্রুয়ারি কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের জনপ্রতিনিধিদের প্রথম সভা হয়। সে হিসেবে ৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে নির্বাচন শেষ করার আইনি বাধ্যবাধকতা রয়েছে। কিন্তু আদালতের জটিলতায় এত দিন তা ঝুলে ছিল। সিইসি বলেন, একটি নির্বাচনের আগে ৪০ দিন সময় লাগে। তাই এ মেয়াদে কুমিল্লা সিটি নির্বাচন করা হবে না। আগামী নির্বাচন কমিশনের অধীনে শুরুতেই এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

কুমিল্লায় আঞ্চলিক সার্ভার স্টেশন ভবন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর আলম।

 



মন্তব্য