kalerkantho


‘শিক্ষিতদের একটা অংশ স্বেচ্ছায় বেকার থাকছে’

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৯:২৬



‘শিক্ষিতদের একটা অংশ স্বেচ্ছায় বেকার থাকছে’

‘শিক্ষিত জনগোষ্ঠীর একটা অংশ স্বেচ্ছায় বেকার থাকছেন। কিছু লোক আছেন, যারা গ্রামে যাবেন না। বাজারের প্রয়োজনে যে চাকরিটা তাকে দেওয়া হচ্ছে, সেটা তিনি করবেন না। অনেকে আছেন, চেয়ার দুলিয়ে কাজ করা- না করার একটা আধা কাজের মানসিকতা নিয়ে। কিন্তু এটা এখন সম্ভব নয়। এখন আমাদের কাজ করতে হবে হাতে কলমে। বাজারে যেটার চাহিদা আছে সেটাই করতে হবে।’

১৬ ফেব্রুয়ারি, শনিবার রাজধানীর একটি হোটেলে ‘২০১৯ ফিন্যান্সিয়াল ইনক্লুসিভ সামিটে’ এ মন্তব্য করেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘কৃষি থেকে আমরা শিল্পে ঢুকছি। শিক্ষা ঢুকে গেছে আমাদের গ্রামে। প্রযুক্তিও সমান তালে ঢুকে যাচ্ছে। বেশি সচেতন হওয়ায় গ্রামের শিক্ষিত জনগোষ্ঠী কৃষিতে থাকছে না। শিক্ষিত জনগোষ্ঠী শহরমুখী হচ্ছে। কিন্তু সবার জন্য কাজ পাওয়া যাচ্ছে না। এই যে পাওয়া যাচ্ছে না, এ কারণে অনেকে বেকার থাকছেন।’

পরিকল্পনামন্ত্রী আরও বলেন, ‘তরুণ বয়সের কেউ কেউ আছে, তারা অন্য কোথাও, অন্য কোনোখানে পশ্চিমে-উত্তরে যেতে চায়। আমাদের দেশের বাজারে তারা যথেষ্ট জায়গা পাচ্ছে না। বিদেশে গেলে তারা এমন কিছু বাড়তি সুবিধা ভোগ করবে যেটা আমাদের সমাজে নানা সাংস্কৃতিক ও ঐতিহ্যগত কারণে পাচ্ছে না।’

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ব্যাংকগুলোকে আমরা আইন করে বলছি, গ্রামে শাখা খুলতে হবে। সব ধরনের মানুষের অংশগ্রহণ আরও বাড়ানোর জন্য আয়োজন করা হয়েছে প্রথমবারের মতো ‘২০১৯ ফিন্যান্সিয়াল ইনক্লুসিভ সামিট’।



মন্তব্য