kalerkantho


আসন্ন নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক ও প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে : তোফায়েল

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ নভেম্বর, ২০১৮ ১৭:৪১



আসন্ন নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক ও প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে : তোফায়েল

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, সরকার সকল রাজনৈতিক জোট ও দলের সংবিধান ও বাস্তবসম্মত সব দাবি মেনে নিয়েছে।

তিনি বলেন, সব রাজনৈতিক দল নির্বাচনী কার্যক্রম পুরোদমে চালিয়ে যাচ্ছে। এ নির্বাচন শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হবে।

তোফায়েল আহমেদ আজ সচিবালয়ের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে ঢাকায় নিযুক্ত নরওয়ের রাষ্ট্রদূত সিডসেল ব্লেকেনের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে এ কথা বলেন।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, আসন্ন জাতীয় নির্বাচন অবাধ, নিরপেক্ষ, অংশ গ্রহনমূলক ও প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে, বিজয়ী দল সরকার গঠন করবে। দেশের রাজনৈতিক জোট ও দলের দাবির প্রেক্ষিতে আন্তরিক পরিবেশে দুই দফায় সংলাপ হয়েছে।

তিনি বলেন, ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে ঐক্যজোট এবং বি. চৌধুরীর নেতৃত্বে জোটসহ সকল রাজনৈতিক দল সংবিধানের আলোকে এ নির্বাচনে অংশ নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, রাজনৈতিক দলগুলোর দাবীর প্রেক্ষিতে নির্বাচন কমিশন নির্বাচনের তফসিল পুনঃনির্ধারণ করেছে। এখন ২৩ ডিসেম্বরের পরিবর্তে ৩০ ডিসেম্বর আগামী জাতীয় সংসদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, নরওয়ে বাংলাদেশের বন্ধুরাষ্ট্র। ইউরোপিয়ন ইউনিয়নের দেশ হিসেবে নরওয়ে বাংলাদেশকে এভ্রিথিংকস বাট আর্মস(ইবিএ)-এর আওতায় বাণিজ্য সুবিধা দিচ্ছে। তৈরি পোশাকসহ বেশ কিছু পণ্য নরওয়েতে রপ্তানি করে বাংলাদেশ।

তিনি বলেন, গত অর্থবছরে বাংলাদেশ নরওয়েতে ৯৬.৮৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য রপ্তানি করেছে, একই সময়ে ৬৩ দশমিক ৭০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য আমদানি করেছে। আগামী দিনে নরওয়েতে বাংলাদেশের রপ্তানি আরো বাড়বে। 

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশে নরওয়ের গ্রামীণ ফোন, পাওয়ার সেক্টর, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জসহ ১৩টি প্রতিষ্ঠানের বিনিয়োগ রয়েছে। বাংলাদেশে আরো বিনিয়োগের চিন্তা করছে নরওয়ে ।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল বলেন, নির্বাচনের সকল কাজ শান্তিপূর্ণভাবে সঠিক পথেই এগিয়ে যাচ্ছে। সাজাপ্রাপ্ত কোন ব্যক্তি নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন কিনা, সেটি আদালত নির্ধারণ করবেন।

এ সময় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব(রপ্তানি) তপন কান্তি ঘোষ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।



মন্তব্য