kalerkantho


সরকারের উন্নয়ন প্রচারণার সময় হামলার শিকার মহিলা কর্মীরা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ অক্টোবর, ২০১৮ ১৯:১১



সরকারের উন্নয়ন প্রচারণার সময় হামলার শিকার মহিলা কর্মীরা

বর্তমান সরকারের উন্নয়নের প্রচারণা চালানোর সময় হামলার শিকার হয়েছেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ মহিলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

জানা যায়, কামরাঙ্গীরচর থানা সংলগ্ন সাফওয়ান হাসপাতাল গলিতে পৌঁছালে তাদের ওপর অতর্কিত এই হামলা করা হয়।

অভিযোগ উঠেছে ৫৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী আমিনুল ইসলাম ও ইসমাইলের নেতেৃত্বে তাদের ওপর অতর্কিত হামলা চালানো হয়।

এই সময় গুরুতর আহত হন শেফালী আক্তার শেফু, কাজল, সেতারা বেগম, নূরুন নাহার, মর্জিনা জাহেদাসহ প্রায় দশ বারো জন। ঢাকাসহ নিকটস্থ অন্যান্য হাসপাতালে তারা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

প্রচারণায় নেতৃত্বদানকারী ঢাকা মহানগর দক্ষিণ মহিলা আওয়ামী লীগের সদস্য আহত শেফালী আক্তার শেফু বলেন, আমরা আওয়ামী লীগের গত দশ বছরের উন্নয়ন কাজের প্রচারণা করছিলাম। আলীনগর হয়ে বেইলি রোড থেকে সাইন বোর্ড বাজার শেষ করে যখন আমরা সাফওয়ান হাসপাতাল গলির সামনে এসে লিফলেট বিতরণ করছিলাম সে সময় ৫৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং কাউন্সিল মোহাম্মদ হোসেনের গ্রুপের ইসমাইল এবং আমিনুলসহ বিশ পচিশ জন সন্ত্রাসী এসে আমাদের ওপর হামলা চালায়। হেলমেট, রড দিয়ে তারা আমাদের আঘাত করে। হামলা চালানোর সময় সন্ত্রাসীরা শাহীন চেয়ারম্যানকে নিয়ে অশালীন কথা বলেন।

এ সময় মহিলাদের নাকে, কানে, চোখে আঘাত লাগে। হামলার দৃশ্য মোবাইল ফোনে ধারণ করার চেষ্টাকালে সাতটি মোবাইল ভেঙ্গে ফেলে তারা।

এ ঘটনার পর কাউন্সিলরের হোসেনের চাচাতো ভাই বাপ্পী তার সহযোগীদের নিয়ে মহিলা আওয়ামী লীগের লীগের নেত্রী সেতারা বেগমের বড় গ্রামের ভাড়া বাসায় মালিককে হুমকি ধমকি, দিয়ে আসছে আজকের মধ্যে বাসা ছাড়ার জন্য।

শেফু আরও বলেন, আর পারছি না, আমরা বিএনপির সরকারের সময়ও মামলা, হামলার শিকার হয়েছি, নিজের দল ক্ষমতায় তারপরও মামলা হামলার শিকার হচ্ছি। আমাদের দেখার কেউ নেই। এইভাবে আর কত দিন চলবে?



মন্তব্য