kalerkantho


বিভিন্ন বাস টার্মিনালে ঘরমুখো মানুষের উপচেপড়া ভিড়

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ আগস্ট, ২০১৮ ১৫:৫৬



বিভিন্ন বাস টার্মিনালে ঘরমুখো মানুষের উপচেপড়া ভিড়

ঈদুল আজহার বাকি আর মাত্র এক দিন। প্রিয়জনের সঙ্গে ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করতে দক্ষিণাঞ্চল-উত্তরবঙ্গগামী যাত্রীরা ছুটে চলেছে গাবতলী, সায়েদাবাদ, মহাখালীর দিকে। আজ সোমবার পর্যন্ত অফিস খোলা থাকলেও দুপুর থেকেই বাড়ি ফিরতে শুরু করেছেন রাজধানীর মানুষ।

সরেজমিনে বিভিন্ন টার্মিনাল ঘুরে দেখা গেছে, যাদের অগ্রিম টিকিট করা ছিলো তারা আগে থেকেই এসে কাউন্টারে অপেক্ষা করছেন। তবে যাদের টিকিট করা নেই তারা বাড়তি টাকা দিলেই মিলছে টিকিট। তবে টিকিটের গাড়িতে ভিড় কম থাকলেও লোকাল বাসে রয়েছে উপচে পড়া মানুষের ভিড়। গাড়ি ধরতে হুমড়ি খেয়ে পড়ছে মানুষ।

রাজধানীর সায়েদাবাদ বাস টার্মিনালে গিয়ে দেখা গেছে যাত্রীদের ঢল। দল বেধে সবাই বাসে উঠছেন। দুরপাল্লার গাড়িগুলো যাত্রী নিয়ে নির্ধারিত গন্তব্যে ছেড়ে যাচ্ছে। অন্যান্য বছরের মতো এ বছরও টিকিটের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে বাস মালিকরা। নির্ধারিত ভাড়ার দেড় থেকে দুই গুণ বাড়িয়ে দিয়েছেন তারা।

রাজধানীর চার বহির্গমন পথ গাবতলী, আব্দুল্লাহপুর, বাবুবাজার ও যাত্রাবাড়ী এলাকায় যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। টার্মিনালে অপেক্ষমাণ গাড়ি ও যাত্রীদের চাপে এ যানজট বলে জানিয়েছে ট্রাফিক পুলিশ।

গাবতলী টার্মিনালের পরিবহন সংশ্লিষ্টরা সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, বিকেলে যাত্রীদের চাপ বাড়বে। সেক্ষেত্রে গাড়ির সিডিউলেও হেরফের হতে পারে। কারণ বিকেলে অফিস-আদালত ছুটি হলে যাত্রী ধরতে লোকাল বাসও রাস্তায় নামতে। তখন যানজটও বাড়বে।

এদকে ঈদে ঘরমুখো যাত্রীর কারণে মহাসড়কে যানবাহনের সংখ্যা স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে অনেক বেড়ে গেছে। দুপুরে মহাসড়কের দাউদকান্দি, ইলিয়টগঞ্জ, চান্দিনা, মাধাইয়া, ক্যান্টনমেন্ট, আলেখারচর, পদুয়ারবাজার, সুয়াগঞ্জ, মিয়াবাজার ও চৌদ্দগ্রামে যানবাহনের বেশি চাপ ছিল।



মন্তব্য