kalerkantho


শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে উস্কানির অভিযোগে গ্রেপ্তার ৯৭ জন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ আগস্ট, ২০১৮ ১৭:২৩



শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে উস্কানির অভিযোগে গ্রেপ্তার ৯৭ জন

রাজধানীতে বাসচাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার পর নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন ও বিক্ষোভে উস্কানি দেয়ার অভিযোগে ৫১ মামলায় এখন পর্যন্ত ৯৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের নিউজ পোর্টাল ডিএমপি নিউজের এক খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে। ডিএমপি নিউজ জানায়, গত ২৯ জুলাই আন্দোলন শুরুর পর থেকে গত শনিবার পর্যন্ত তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এদের মধ্যে দণ্ডবিধি ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে দায়ের করা ৪৩ মামলায় ৮১ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর মধ্যে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ২২ শিক্ষার্থীও আছেন, যারা এখন কারাগারে রয়েছেন। এছাড়া, তথ্য-প্রযুক্তি আইনে ৮টি মামলায় ১৬জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এদিকে, একই অভিযোগে রাজধানী থেকে বুধবার এক বিশ্ববিদ্যালয় ও এক মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ আন্দোলনে নানাভাবে গুজব ছড়ানো ব্যক্তিদের শনাক্তে পুলিশ তৎপর রয়েছে বলেও জানানো হয়েছে ডিএমপি নিউজে।

প্রসঙ্গত, গত ২৯ জুলাই বাসচাপায় দুই কলেজ শিক্ষার্থীর মৃত্যুর পর নিরাপদ সড়কের দাবিতে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা আন্দোলনে নামলে অচল হয়ে পড়ে ঢাকার সড়ক।

সপ্তাহব্যাপী এই আন্দোলনের শেষ দিকে আন্দোলনকারীদের উপর হামলা হয় কয়েকটি স্থানে। এরপর বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরাও নামে সড়কে; তাদের সঙ্গে পুলিশের সংঘাতও বাঁধে। তখন বেশ কয়েকজন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এই আন্দোলনকে ভিন্ন খাতে নিতে ইন্টারনেটে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ও বিভ্রান্তিমূলক প্রচারের অভিযোগেও আলোকচিত্রী শহিদুল আলম ও অভিনেত্রী কাজী নওশাবা আহমেদসহ কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার এই আসামিদের মধ্যে শহিদুল ও নওশাবা ছাড়াও রয়েছেন বুয়েটের ছাত্র  দাইয়ান নাফিস প্রধান।

কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের নেতা ইডেন কলেজের ছাত্রী শামসুন নাহার লুমা, ইউল্যাবের ছাত্র নাজমুস সাকিবকেও গ্রেপ্তার করা হয় তথ্য প্রযুক্তি আইনের মামলায়।



মন্তব্য