kalerkantho


'গণপূর্ত বিভাগের সক্ষমতা আগের তুলনায় বেড়েছে'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৫ এপ্রিল, ২০১৮ ১৪:৫৫



'গণপূর্ত বিভাগের সক্ষমতা আগের তুলনায় বেড়েছে'

কাজের গুণগত মান বজায় রেখে সময়মতো ও দায়িত্বশীলতার সাথে প্রকল্প কাজ সম্পন্ন করতে প্রকৌশলীসহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন।

তিনি আজ বুধবার দুই দিনব্যাপী ‘গণপূর্ত অধিদপ্তরের বাস্তবায়নাধীন উন্নয়ন প্রকল্পের অগ্রগতি পর্যালোচনা বিষয়ক বার্ষিক সম্মেলন ২০১৭-১৮’ এর উদ্বোধনী অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্ততা করছিলেন।

গণপূর্ত মন্ত্রী বলেন, উন্নয়ন প্রকল্পের কাজের মান নিশ্চিত করতে হবে। সেজন্য মনিটরিং ব্যবস্থা জোরদার করতে হবে। প্রকৌশলীরা প্রকল্প কাজ সঠিকভাবে সুপারভিশন না করলে কাজের মান ভালো হয় না। সুপারভিশনের মাধ্যমে মন্ত্রণালয়ের প্রকৌশলী ও সংশ্লিষ্টদের মানসম্পন্ন কাজ নিশ্চিত করতে হবে। কাজের গুণগত মান বজায় রেখে সময়মতো ও দায়িত্বশীলতার সাথে প্রকল্প কাজ সম্পন্ন করতে হবে।

গণপূর্ত বিভাগের সক্ষমতা আগের তুলনায় অনেক বেড়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, গণপূর্ত বিভাগের কাজের মান আগের চেয়ে বৃদ্ধি পেয়েছে, এই মান আরও বাড়াতে হবে। পাশাপাশি ভবনের রক্ষণাবেক্ষণের বিষয়েও নজর দিতে হবে।

গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী বলেন, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারিদের জন্য নির্মিতব্য প্রতিটি ভবন এখন থেকে ২০ তলা করা হবে এবং প্রত্যেকটি ভবনে বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ ব্যবস্থা রেইন হারভেস্টিং), সোলার সিস্টেম, আরবরিকালচার, সুয়ারেজ ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট (এসটিপি) স্থাপন, অভ্যন্তরীণ পানি সরবরাহ ও বিদ্যুতায়ন ব্যবস্থা থাকবে। ভবন নির্মাণ করে ওয়াসা আর সিটি কর্পোরেশনের সেবার জন্য বসে থাকতে হবে না। 

তিনি বলেন, বেশিসংখ্যক সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীর আবাসন সুবিধা দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের। এর অংশ হিসেবে বহুতল ভবন নির্মাণের মাধ্যমে স্বল্প পরিমাণ জমিতে বেশিসংখ্যক আবাসন সুবিধা নিশ্চিত করতে প্রকল্প নেওয়া হয়েছে। এগুলো বাস্তবায়ন হলে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আবাসন সমস্যা অনেকাংশে দূর হবে।

গণপূর্ত অধিদপ্তরের সম্মেলন কক্ষে উদ্বোধনী অধিবেশনে অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী মোহাম্মদ রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. শহীদ উল্লা খন্দকার ও স্থাপত্য অধিদপ্তরের প্রধান স্থপতি কাজী গোলাম নাসির। 


মন্তব্য