kalerkantho


ঢাকা-কাঠমান্ডু পরীক্ষামূলক বাস চলাচল শুরু

বাসটি পাড়ি দেবে প্রায় ১১৮০ কিলোমিটার

চুক্তি স্বাক্ষরের পর নিয়মিত বাস ও ব্যক্তিগত গাড়ি চলবে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ এপ্রিল, ২০১৮ ১৭:২২



বাসটি পাড়ি দেবে প্রায় ১১৮০ কিলোমিটার

উপ-আঞ্চলিক সড়ক যোগাযোগ উন্নয়নের অংশ হিসেবে ঢাকা-কাঠমান্ডু সরাসরি পরীক্ষামূলক বাস চলাচল শুরু হয়েছে। আজ সোমবার সকাল ৯টায় রাজধানী ঢাকার কমলাপুর  থেকে নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুর উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছে প্রথম ভলবো বাস। এটি শ্যামলী এন আর ট্র্যাভেলস কোম্পানির বাস।

পরীক্ষামূলক চলাচল হিসেবে এটি রওনা দেয়। বাসটি ভারতের শিলিগুড়ি হয়ে নেপালের কাঠমান্ডু পৌঁছাবে আগামী  বৃহস্পতিবার। বাসটি পাড়ি দেবে প্রায় ১১৮০ কিলোমিটার।  

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, এরপর থেকে নিয়মিতভাবে শ্যামলী এন আর ট্র্যাভেলস কোম্পানির বাস বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশন-বিআরটিসির লোগো নিয়ো ঢাকা-কাঠমান্ডু পথে সরাসরি চলাচল করবে। 

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, ২০১৫ সালের জুনে ভুটানের রাজধানী থিম্পুতে বিবিআইএন এর চুক্তি হয়েছিল চার দেশে। তারই প্রেক্ষিতে ঢাকা-কাঠমান্ডু বাস চলাচলের এ প্রক্রিয়া সুচিত হয়েছে। প্যাসেঞ্জার প্রটোকল স্বাক্ষরের পর এ পথে নিয়িমত বাস চলাচল করবে। বাণিজ্যিক যাত্রীবাহী বাস ছাড়াও ব্যক্তিগত গাড়ি চলাচল করতে পারবে। 

বিআরটিসির চেয়ারম্যান ফরিদ আহমেদ ভূইয়া কালের কণ্ঠকে বলেন, পরীক্ষামূলকভাবে বাস চলাচল শুরুর এ যাত্রায় সড়কপথের সম্ভাব্যতা যাছাই করা হবে। বিবিআইএন মোটরযান চুক্তির প্রেক্ষিতে এটি একটি বড় অগ্রগতি। সম্ভাব্যতা যাছাইয়ের পর নিয়মিত চলাচলের বিষয়ে আমরা করনীয় নির্ধারন করব।

ঢাকা থেকে বাংলাবান্দার ৪৫০ কিলোমিটার দুরে। বাংলাবান্ধা থেকে নেপালের কাঁকরভিটা স্থলবন্দর ৩৭ কিলোমিটার দূরে। কাঁকরভিটা থেকে কাঠমান্ডুর দূরত্ব ৬০০ কিলোমিটার। এর মধ্যে ২২০ কিলোমিটার পাহাড়ি খাড়া রাস্তা। সবমিলিয়ে ঢাকা থেকে কাঠমান্ডু ১১৮০ কিলোমিটার সড়কপথ।

আজ সকাল ৯ টায় এ কোম্পানির একটি বাস কমলাপুর বিআরটিসি আন্তর্জাতিক টার্মিনাল থেকে রওনা দেয়। প্রতি সপ্তাহে বাসটি নিয়মিতভাবে এখান থেকে ছেড়ে যাবে। আজ প্রথম বাসযাত্রায় সঙ্গী হয়েছেন বাংলাদেশের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা, দাতা সংস্থা এশিয় উন্নয়ন ব্যাংক-এডিবির সদস্য এবং ভারত ও নেপালের প্রতিনিধি ও সংবাদকর্মী সহঅর্ধশত যাত্রী। বিআরটিসির চেয়ারম্যান ফরিদ আহমেদ ভূইয়া ও সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব আজহারুল ইসলাম খান বাংলাদেশের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন।

বিআরটিসির কর্মকর্তারা কালের কণ্ঠকে জানান, আজ রাতে রংপুরে রাত্রীযাপন করে প্রতিনিধিদল। আগামীকাল সকালে বাংলাবান্ধা সীমান্তপথে ভারতের শিলিগুড়ি ঢুকবে বাস। এদিন রাতে শিলিগুড়ি অবস্থান করবে প্রতিনিধি দল। পরদিন ২৫ এপ্রিল সকালে নেপালের কাঁকরভিটায় ঢুকবে বাস। এরপর নেপালের ভরতপুর নামে একটি জায়গায় রাত্রী যাপন করবে প্রতিনিধি দল। ২৬ এপ্রিল সকালে ভরতপুর থেকে কাঠমান্ডুর পথে রওনা হবেন বাস যাত্রীরা।

শ্যামলী এন আর ট্র্যাভেলসের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক শুভঙ্কর ঘোষ রাকেশ জানান, এটিই প্রথম বারের মত কোনো সড়ক পরিবহন যা কাঠমান্ডু যাচ্ছে। এটি বিলাসবহুল হুন্দাই বাস। ভারত হয়ে নেপালের সড়ক পথে যাত্রীরা চলাচল করতে পারবেন। বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে পাঁচটি আন্তর্জাতিক পথে বাসসেবা চালু রেখেছে শ্যামলী এন আর ট্র্যাভেলস। এ বাস চলাচল করছে ঢাকা-কোলকাতা-ঢাকা, ঢাকা-খুলনা-কোলকাতা, ঢাকা-আগরতলা-ঢাকা, ঢাকা-শিলং-গৌহাটি পথে।


মন্তব্য