kalerkantho


আজীবন সম্মাননায় ভূষিত হলেন মুস্তাফা মনোয়ার

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

২১ মার্চ, ২০১৮ ২৩:১৩



আজীবন সম্মাননায় ভূষিত হলেন মুস্তাফা মনোয়ার

বিশ্বপুতুল নাট্য দিবসে আজীবন সম্মাননা পেলেন শিল্পী মুস্তাফা মনোয়ার। এ ছাড়াও গুণী পুতুলনাট্য শিল্পী সম্মাননা পেয়েছেন বাগেরহাটের মোশারেফ হোসেন দর্জি।

আজ সন্ধ্যায় শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার পরীক্ষণ থিয়েটার হলে গুণী এই দুই শিল্পীকে এ সম্মাননা প্রদান করা হয়।

আলোচনা, সম্মাননা প্রদান মাল্টিমিডিয়া পাপেট থিয়েটার প্রদর্শনী দিয়ে সাজানো ছিলো পুতুল নাট্য দিবস উদযাপনের এই আয়োজন। এ সময় শিল্পকলা একাডেমির নাট্যকলা ও চলচ্চিত্র বিভাগের পরিচালক বদরুল আনম ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে আলোচনা পর্বে অংশ নেন শিল্পী মুস্তাফা মনোয়ার, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রশীদ হারুন ও নাট্য ব্যক্তিত্ব এস এম মহসীন।

অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে শিল্পী মোস্তাফা মনোয়ার বলেন, পুতুল নাচ অনেকবার হুমকির সম্মুখীন হয়েছে। তারপরও থেমে থাকেনি। পাকিস্তান আমলেও পুতুল নাচ বন্ধ করতে চেষ্টা করা হয়েছিলো। সবাই বলে পুতুল নাচ শিল্পীদের টাকা কম! আমি বলবো টাকা কম হওয়াটাই ভালো। কারণ যেকোনো শিল্প যখন টাকার দিকে ছুটে তখন ধ্বংস হয়ে যায়। আর কোনো ধরণের সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা না থাকাই ভালো। কারণ তখন শিল্প আর শিল্পের কথা বলতে পারেনা।

এ সময় আলোচকরা বলেন, পুতুল মানুষের চিরকালীন সঙ্গী। এমন জাতি গোষ্ঠী ধর্ম বর্ণের মানুষ পাওয়া দুষ্কর যারা শিশুর হাতে পুতুল তুলে দেন না তাদের কান্না থামিয়ে মুখে হাসি ফোটানোর জন্য। মানব সভ্যতার সমান বয়সি এই পুতুল সুতা কিংবা কাঠির সাহায্যে নড়াচড়া করিয়ে বিনোদন ও লোকশিক্ষার মাধ্যম হিসাবে মানুষ ব্যবহার করে আসছে তার ইতিহাস-ঐতিহ্যও হাজার বছরের।

আলোচনা ও সম্মাননা প্রদান পর্ব শেষে পরিবেশিত হয় মাল্টিমিডিয়া পাপেট থিয়েটার প্রদর্শনী। এর আগে বিকেলে জাতীয় নাট্যশালার স্টুডিও থিয়েটার হলে পুতুলনাট্য পরিবেশন করে বাগেরহাটের দি আজাদ পুতুলনাট্য এবং জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলাদেশ পুতুলনাট্য গবেষণা ও উন্নয়ন কেন্দ্র।



মন্তব্য