kalerkantho


আর্মি স্টেডিয়ামে আলিফুজ্জামানের মায়ের আকুতি

'আমার ছেলের লাশটা আইনা দেন বাবা'

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ মার্চ, ২০১৮ ০৮:৫৫



'আমার ছেলের লাশটা আইনা দেন বাবা'

ছবি : কালের কণ্ঠ

‘সবাই লাশ পাচ্ছে। এইটাও তো মনের সান্ত্বনা। আপনারা একটু মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে বলেন আমার ছেলের লাশটা যেন আমি দেখতে পাই। যেমনই হোক আমার ছেলের লাশটা আইনা দেন বাবা।’—গতকাল বিকেলে আর্মি স্টেডিয়ামে মাইকে ঘোষণা দিয়ে নেপালে নিহতদের লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তরের সময় মাঠের এক কোণে সাংবাদিকদের কাছে এভাবেই বিলাপ করছিলেন এক নারী। তিনি দুর্ঘটনায় নিহত খুলনার রূপসা উপজেলার আইচগাতি গ্রামের আলিফুজ্জামানের মা মনিকা পারভিন। নিহত বাংলাদেশিদের মধ্যে যে তিনজনের পরিচয় শনাক্ত করা যায়নি আলিফুজ্জামান তার একজন। গতকাল ছেলের পরিচয় শনাক্ত করার জন্য ঢাকায় এসে ডিএনএ নমুনা দেন মনিকা পারভিন ও তাঁর স্বামী মোল্লা আসাদুজ্জামান। এরপর আর্মি স্টেডিয়ামে গিয়ে অন্য নিহতদের লাশ হস্তান্তর দেখে তাঁরা কান্নায় ভেঙে পড়েন।

আলিফুজ্জামানের ছোট ভাই ইয়াছিন আরাফাত ছিলেন তাঁদের সঙ্গে। তিনি জানান, আলিফুজ্জামান ছিলেন খুলনার বিএল কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র। পাশাপাশি বঙ্গবন্ধু ছাত্র যুব পরিষদ নামের সংগঠনের সহসভাপতি ছিলেন। ছিলেন খুলনা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক নেতা। নেপালে বেড়াতে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হন তিনি।

বাবা আসাদুজ্জামান ও ভাই আরাফাত বলেন, পরিবারের কারো পাসপোর্ট না থাকায় তাঁরা দ্রুত নেপালে যেতে পারেননি। আলিফুজ্জামানের এক খালু সেখানে যান। তিনি লাশ শনাক্ত করতে পারেননি। সেখানে ডিএনএ নমুনাও রাখা হয়নি। গতকাল তাঁরা নমুনা দিয়েছেন। ইউএস-বাংলা কর্তৃপক্ষের সঙ্গেও যোগাযোগ করছেন। দ্রুত আলিফুজ্জামানের লাশ শনাক্ত করে দেশে আনার জন্য সরকারের সহযোগিতা চাইছে স্বজনরা।


মন্তব্য