kalerkantho


আইআইডি'র আলোচনা সভায় ডেপুটি স্পিকার

২০৪১ সালের আগেই উন্নত দেশের কাতারে অবস্থান করবে বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৯ মার্চ, ২০১৮ ০১:৫১



২০৪১ সালের আগেই উন্নত দেশের কাতারে অবস্থান করবে বাংলাদেশ

ছবি : কালের কণ্ঠ

জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট মো. ফজলে রাব্বী মিয়া বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জীবিত থাকলে বাংলাদেশ এতদিন মালয়েশিয়ার উর্ধ্বে অবস্থান করতো। যেখানে বাংলাদেশের মালয়েশিয়া থেকে শ্রমিক আনার কথা ছিল সেখানে বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়ায় শ্রমিক পাঠাতে হচ্ছে। তবে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ২০৪১ সালের আগেই বাংলাদেশ উন্নত দেশের কাতারে অবস্থান করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

গতকাল রবিবার রাজধানীর গুলশানে একটি হোটেলে 'অবৈধ শ্রম অভিবাসন রোধ নীতিমালা' শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। ইনস্টিটিউট অব ইনফরমেশন অ্যান্ড ডেভোলপমেন্ট (আইআইডি) আয়োজিত ওই আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের প্রধান নির্বাহী সাইদ আহমেদ।

সভায় ডেপুটি স্পিকার বলেন, জাতির পিতাকে স্বপরিবারে হত্যার পর বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা বিরাট হোঁচট খেয়েছিল। ৭৫ পরবর্তী সময়ে একটি অস্থির অবস্থায় দেশ পরিচালিত হয়েছে। ১৯৯৬ সালে জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় আসার পর জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে কাজ শুরু হয়। তারই (হাসিনা) দক্ষ নেতৃত্বে বাংলাদেশের অর্থনীতির ভীত মজবুত হয়েছে। বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে চলে এসেছে।

বিদেশে মানব সম্পদ প্রেরণের বিষয়ে সতর্কতা হওয়ার আহ্বান জানিয়ে মো. ফজলে রাব্বী মিয়া বলেন, একশ্রেণির দালাল চক্রের হাতে পড়ে সাধারণ মানুষ প্রতারণার শিকার হচ্ছে। অবৈধভাবে এইসব দালালচক্র বিদেশে লোক পাঠালেও বিদেশের মাটিতে তাদের বিপাকে পড়তে হচ্ছে। এ বিষয়ে বিদেশে কর্মসংস্থানে ইচ্ছুক লোকদের সতর্ক থাকার পরামর্শ দেন। একইসঙ্গে সরকার অনুমোদিত যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে বিদেশে কাজ করতে যাওয়ার আহ্বান জানান তিনি।


মন্তব্য